Download Free FREE High-quality Joomla! Designs • Premium Joomla 3 Templates BIGtheme.net

দেশ উন্নয়নের মহাসড়কে পা রেখেছে

জীবননগরে ৩ দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এমপি টগর

জীবননগর ব্যুরো: ‘উন্নয়নের গণতন্ত্র, শেখ হাসিনার মূলমন্ত্র’ এ স্লোগান নিয়ে জীবননগর উপজেলায় ৩ দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলার ২০১৭ উদ্বোধন করা হয়েছে। এতে উপজেলার বিভিন্ন সরকারি দফতরের ৩২ স্টল বসেছে। উপজেলা প্রশাসন এ মেলার আয়োজন করে। গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১০টার দিকে উপজেলা পরিষদ চত্ব¡রে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নূরুল হাফিজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উন্নয়ন মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি মো. আলী আজগার টগর। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বলেন, ১৯৯১ সালে বিএনপি সরকারের সময়ে তাদের সীমাহীন দুর্নীতিতে দেশের কৃষিখাত মুখ থুবড়ে পড়ে। বিএনপি চেয়েছিলো দেশ যেন সবসময় ভিক্ষুকের জাতি হিসেবে থাকে। ১৯৯৬ সালে আওয়াম লীগ সরকার গঠন করে কৃষিখাতের উন্নয়নকে অগ্রাধিকার দেয়। খাদ্য ঘাটতির দেশকে খাদ্যে উদ্বৃত্তের দেশে পরিণত করে। দেশ আজ কৃষিতে বিপ্লব ঘটিয়েছে। সার ও ডিজেলসহ সব ধরনের কৃষি উপকরণ কৃষকদের ক্রয় ক্ষমতার ভেতরে রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, ২০০৬ সালে ২৪ ঘন্টায় বিদ্যুত পেতাম মাত্র ৪ ঘণ্টা। ওই সময় দেশে বিদ্যুত উৎপাদন হতো মাত্র ৩ হাজার মেগাওয়াট। বর্তমানে বিদ্যুত উৎপাদন হচ্ছে ১৪ হাজার মেগাওয়াট। আওয়ামী লীগ সরকার শিক্ষা ক্ষেত্রেও আমূল পরিবর্তন এনেছে। জানুয়ারি মাসের প্রথম দিনই শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, সরকার কৃষকদের জন্য ১০ টাকায় ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলার ব্যবস্থা করেছে। মাত্র ৪ শতাংশ সুদে কৃষক ঋণ নিতে পারে।
সংসদ সদস্য আলী আজগার টগর তার সরকারের উন্নয়নের কথা তুলে ধরে আরও বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর যুদ্ধাপরাধীদের বিচার, খাদ্যে স্বনির্ভরতা অর্জন, শিক্ষাক্ষেত্রে সাফল্য, কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা, দারিদ্র্য দূরীকরণ, স্বাস্থ্য ও চিকিৎসাসেবা এবং সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে। তিনি আক্ষেপ করে বলেন, ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গ্রামীণ মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে কমিউনিটি ক্লিনিক চালু করেছিলো। কিন্তু বিএনপি ক্ষমতায় আসার পর তা বন্ধ করে দিয়েছিলো। কারণ তারা জনগণের সরকার নয়। তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ চালুর অংশ হিসেবে প্রতিটি ইউনিয়নে ই-তথ্য সেবাকেন্দ চালু করা হয়েছে। কিন্তু জামাত-বিএনপি এ উন্নয়নের ধারা বাধাগ্রস্থ করতে বিভিন্ন ধরনের ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। তাদের এ ষড়যন্ত্র রুখতে আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাস রেখে আমাদেরকে ধর্মীয় কুশস্কার থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ সামসুল আবেদীন খোকন, চুয়াডাঙ্গা-৬ বর্ডারগার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ আমির মজিদ, জীবননগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবু মো. আব্দুল লতিফ অমল, জীবননগর পৌর মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলম, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়েশা সুলতানা লাকি, উথলী ইউপি চেয়ারম্যান মো. আব্দুল হান্নান, আন্দুলবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম মুক্তার, রায়পুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. তাহাজ্জত হোসেন মির্জা, হাসাদাহ ইউপি চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম, সীমান্ত ইউপি চেয়ারম্যান ময়েন উদ্দীন মঈন ও উথলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সোহরাব হোসেন খাঁন। পরে সংসদ সদস্য হাজি মো. আলী আজগার টগর ব্যক্তিগত তহবিল থেকে উপজেলার ৫০ জন দুস্থ্য মহিলাদের মাঝে সেলাইমেশিন বিতরণ করেন এবং শেষে প্রধান অতিথি মেলার প্রতিটি স্টল পরিদর্শন করেন। অনুষ্ঠানটির সার্বির পরিচালনায় ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা সালমা জাহান নিপা।


আরো দেখুন

কাজি মোহাম্মদের জেল : বর-কনে ধরতে পুলিশ হয়রান

চুয়াডাঙ্গার মাখালডাঙ্গায় বাল্যবিয়ে : ইউএনও পৌছুনোর আগেই সরিয়ে নেয়া হলো ছাদনাতলা স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার মাখালডাঙ্গায় …

Loading Facebook Comments ...