সদ্যপ্রাপ্ত সংবাদ
Download Free FREE High-quality Joomla! Designs • Premium Joomla 3 Templates BIGtheme.net

দামুড়হুদার কুড়ুলগাছিতে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ড কার্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে হাসেম রেজা

জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে পাশে থাকবো
স্টাফ রিপোর্টার: জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে যেকোনো পরিস্থিতিতে তাদের পাশে থাকার ঘোষণা দিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতা এলাকার উদীয়মান তরুণ ও জনপ্রিয় রাজনীতিক হাশেম রেজা বলেছেন, আমাদের বাঙালি জাতির মুক্তির দিশারী এই বীর মুক্তিযোদ্ধারা বাংলাদেশের স্বাধীনতা ছিনিয়ে আনতে নিজের জীবনবাজি রেখে মরণপণ যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলো। তাদের সেই আত্মত্যাগের বিনিময়ে আজ আমরা স্বাধীন। তাই জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার তাদেরকে সব ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে থাকে। তাদের সাধারণ সদস্যদের জন্য ১০ হাজার এবং যুদ্ধাহত ও অন্যান্যদের ক্ষেত্রে ২০ হাজার টাকা ভাতা প্রদান করে যাচ্ছে আমদের সরকার। এছাড়া তাদের জন্য বিনা পয়সায় চিকিৎসা, যাদের ঘর নেই তাদের জন্য বাসস্থানসহ সকল মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বিভিন্ন সুযোগ সুবিধার ব্যাবস্থা করা হয়েছে, যা এর আগে কোনো সরকার করেনি এবং বিশ্বের কোনো দেশেও এটা নেই।
গত সোমবার সকাল ১০টার দিকে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের দামুড়হুদা উপজেলার কুড়ুলগাছি কমান্ড কার্যালয়ের স্থায়ী অফিসের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনকালে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন কুড়ুলগাছির কৃতি সন্তান হাশেম রেজা। এ উপলক্ষে কুড়ুলগাছি ইউনিটের কমান্ডার ইস্রাফিল হোসেনের সভাপতিত্বে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, বীর বাঙালির গর্বিত সন্তান প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের কোনো দল নেই, থাকতে পারে না। কারণ তারা বাঙালি জাতির অহঙ্কার বিশ্বের সকল মুক্তিকামী ও শোষিত মানুষের অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের ডাকে মুক্তিযুদ্ধ করেছিলেন। তাই তাদের নেতা একজনই, তাদের দল একটাই।
হাশেম রেজা অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে আবেগঘন পরিবেশের মাঝে উপস্থিত মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্দেশে বলেন, আমি মুক্তিযুদ্ধ দেখিনি, তবে ইতিহাস পড়ে জেনেছি আপনাদের বীরত্বগাথা। আমি আপনাদেকে স্যালুট করি দেশ মাতৃকার সেই ক্রান্তিলগ্নে আপনাদের অপরিসীম ও গৌরবজ্জল ভূমিকার কারণে। একজন ক্ষুদ্র মানুষ হিসেবে আপনাদের পথচলায় সহযাত্রী হতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। এলাকার মুক্তিযোদ্ধাগণ তাদের যেকোনো প্রয়োজনে তার কাছে আসার অনুরোধ জানিয়ে জননেতা হাশেম রেজা বলেন, আপনাদের প্রয়োজনে পাশে দাঁড়াতে পারলে মনে করবো দেশের জন্য কিছু করতে পারলাম।
প্রয়োজনীয় অফিস না থাকায় বিক্ষিপ্তভাবে ঘুরে বেড়ানো এলাকার মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য নিজ খরচে কুড়ুলগাছি বাজারে একটি স্থায়ী অফিস নির্মাণ করে দিচ্ছেন হাশেম রেজা। এর ফলে মুক্তিযোদ্ধাদের একটি স্থায়ী ঠিকানা হওয়ায় হাশেম রেজার প্রতি তারা অশেষ দোয়া ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।
অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, কুড়ুলগাছি কমান্ডের সহকমান্ডার মশিউর রহমান, পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনয়নের কমান্ডার তমছের আলী, থানা কমান্ডের সদস্য নজির আহমদ, নুরুল হক, রেজাউল করিম (অবসরপ্রাপ্ত বিজিবি সদস্য), এরশাদ আলী, মহাতাব উদ্দীন, লিয়াকত আলী, জামাল উদ্দীন, হেকমত আলী, হানেফ আলী, পীর মহাম্মদ, লুৎফর রহমান, ইখলাছ আলী, রুহুল আমীন, মোহাম্মদ আলী, মতিয়ার রহমান, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক ইয়াছির আরাফাত মিলনসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত শতাধীক মুক্তিযোদ্ধা।


আরো দেখুন

গাংনীতে সম্মিলিত মুক্তিযোদ্ধা কমিটির মানববন্ধন

গাংনী প্রতিনিধি: গেজেটভুক্ত মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ ও সম্মানিভাতা বন্ধের প্রতিবাদে মেহেরপুর গাংনীতে মানববন্ধন করেছে …

Loading Facebook Comments ...