শৈলকুপায় বৃদ্ধের আত্মহত্যা নাকি হত্যা?

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের শৈলকুপা মনোহরপুর ইউনিয়নের পাঠানপাড়া গ্রামের উজির মণ্ডুল (৭৫) নামের এক বৃদ্ধ গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে নাকি তাকে পুত্রবধূ হত্যা করেছে, এ নিয়ে ধুম্রজালের সৃষ্টি হয়েছে। নিহত উজির মণ্ডল পাঠানপাড়া গ্রামের মৃত জব্বার মণ্ডলের ছেলে। এলাকাবাসীর অভিযোগ তার ছোট পুত্রবধূ সুমি তাকে হত্যা করে মৃতদেহ ঘরের আড়ার সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলিয়ে রাখে।
অভিযোগে জানা যায়, উজির মণ্ডলের দুই ছেলে মানিক ও মুক্তার। ছোট ছেলে মুক্তার আনসার ব্যাটেলিয়নের চাকরি সুবাদে বাইরে থাকে। উজির মণ্ডল ছোট পুত্রবধূর সংসারে থাকতেন। ছোট পুত্রবধূ সুমী তাকে প্রায় ৫ দিন ঠিকমত খেতে দেননি ও গত সোমাবর শ্বশুরের রুমের বিদ্যুত লাইন বিচ্ছিন্ন করে দেন। এরপর গতকাল মঙ্গল বার সকালে গলাই ফাঁস দেয়া অবসস্থায় আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে শৈলকুপা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।
তবে স্থানীয়দের অভিযোগ, উজির আলীর ছোট পুত্রবধূ সুমী তাকে হত্যা করে মৃতদেহ ঘরের আড়ার সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলিয়ে রাখেন। শৈলকুপা থানার ওসি তরিকুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা দায়ের ও ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহ মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।


আরো দেখুন

চুয়াডাঙ্গার ডিঙ্গেদহে বিদ্যুত বিল দেয়াকে কেন্দ্র করে মসজিদ কমিটির সেক্রেটারিকে বাটামপেটা

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার ডিঙ্গেদহের মখলেছুর রহমানকে বাটাম দিয়ে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। তিনি চুয়াডাঙ্গা জেলা …

Loading Facebook Comments ...