ট্যাঙ্ক থেকে মলতুলে হাসপাতালের খোলা  -ড্রেনে ফেলায় ক্ষোভ : হরিজন সম্প্রদায়ের বাধা

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের টয়লেটের ট্যাঙ্ক থেকে শ্যালোইঞ্জিন দিয়ে মল তুলে নর্দমায় ফেলার দৃশ্য দেখে সাধারণ মানুষ যখন ক্ষোভ প্রকাশ করতে শুরু করে, ঠিক তখনই সেখানে হাজির হন হরিজন সম্প্রদায়ের একদল পুরুষ। তাদের দাবি, মল পরিষ্কারের কাজ আমাদের। আমাদের কাজ কেন মসুলমানকে দিয়ে ঠিকাদার করাবেন? এ কাজ করতে দেয়া হবে না।

হরিজন সম্প্রদায়ের লোকজনের বাধার মুখে ঠিকাদারের নিযুক্ত চুয়াডাঙ্গার সাতগাড়ির ৪ যুবক কাজ ফেলে হাত গুটিয়ে দাঁড়ান। হাজির হন ঠিকাদার। তিনি অবশ্য হরিজন সম্প্রদায়ের খুলনা বিভাগীয় নেতাসহ চুয়াডাঙ্গার নেতৃবৃন্দের যুক্তির কাছে হার মেনে শেষ পর্যন্ত হাসপতালের পায়খানার ট্র্যাঙ্ক পরিষ্কার করার দায়িত্ব হরিজন সম্প্রদায়ের সদস্যদের ওপরই ছেড়ে দেন। ২০ হাজার টাকায় এ কাজের চুক্তিও করা হয় প্রকাশ্যে। গণপূর্ত বিভাগের নিযুক্ত ঠিকাদার হাসপাতালের টয়লটের ট্যাঙ্কের মল তুলে গর্তে না ফেলে হাসপাতালেরই ড্রেনে ফেলায় ক্ষোভ দানা বেঁধেছে। গণপূর্ত বিভাগের দািয়ত্বশীলদের এদিকে দৃষ্টি দেয়া দরকার বলেও মন্তব্য অনেকের।

 


আরো দেখুন

চুয়াডাঙ্গার ডিঙ্গেদহে বিদ্যুত বিল দেয়াকে কেন্দ্র করে মসজিদ কমিটির সেক্রেটারিকে বাটামপেটা

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার ডিঙ্গেদহের মখলেছুর রহমানকে বাটাম দিয়ে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। তিনি চুয়াডাঙ্গা জেলা …

Loading Facebook Comments ...