দামুড়হুদায় আমন চারা রোপণে ব্যস্ত কৃষক

 

কুড়–লগাছি প্রতিনিধি: আমনের চারা রোপণে ব্যস্ত সময় পার করছেন দামুড়হুদার কৃষকরা। মরসুমের শুরুতে নিরলস পরিশ্রম করে সোনালী ধান ঘরে তুলে সারাবছরের খাবার জোগানের স্বপ্ন দেখছেন তারা। তাই রোদ বৃষ্টি উপেক্ষা করে কেউ বীজতলায় চারা তুলছেন, কেউ জমি সমান করছেন আর কেউবা জমিতে একটি একটি করে রোপণ করছেন স্বপ্নের চারাগাছ। এ বছর জৈষ্ঠ্য ও আষাঢ় মাসে নিরবিচ্ছিন্ন হালকা বৃষ্টি হওয়ায় কৃষকরা তাদের জমিগুলো আগেই ভালোভাবে জাবর দিতে পেরেছেন। আর জমি প্রস্তুত থাকায় মরসুম পড়তেই  জোরেসোরে শুরু হয়েছে চারা রোপণের কাজ। তিনদিন ধরে থেমে থেমে বৃষ্টি হওয়ায় উপজেলার আমনচাষিদের মুখে হাসির ঝিলিক লেগেছে। আষাঢ়ে ও বৃষ্টি না হওয়ায় প্রয়োজনীয় পানির অভাবে আমন চারা নিয়ে তারা বিড়ম্বনায় পড়েছিলেন। দীর্ঘ প্রতীক্ষিত বৃষ্টির পর কৃষকরা ক্ষেত পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছেন।

খরার কারণে কৃষকরা আমন আবাদ নিয়ে শঙ্কিত হয়ে পড়েন।

ধান্যঘরা গ্রামের কৃষক আফজাল হোসেন এবার ৫ বিঘা জমিতে আমন চারা রোপণ করেছেন। ভরা বর্ষায় প্রয়োজনীয় বৃষ্টি না হওয়ায় চিন্তিত কৃষক। এ কারণে ক্ষেতের পরিচর্যা করা তার পক্ষে সম্ভব হয়নি। তিনদিন ধরে বৃষ্টি হওয়ায় তিনি পুরোদমে ক্ষেতের পরিচর্যায় নেমে পড়েছেন। কুড়–লগাছি গ্রামের কৃষক আবদুল সোবহান জানান, আকাশ থেকে আল্লাহ রহমতের পানি নামতে শুরু করেছে। বৃষ্টি না হলে এবার আমন চারা নিয়ে চিন্তায় কৃষকরা নাওয়া-খাওয়া ছেড়েই দিয়েছিলো। দীর্ঘদিন ধরে বৃষ্টি না হওয়ায় আমনচাষিরা হতাশ হয়ে পড়েছিলেন। কিন্তু বৃষ্টি হওয়ায় চাষিদের মুখে হাসির ঝিলিক ফুটে উঠেছে।

 

 


আরো দেখুন

চুয়াডাঙ্গার ডিঙ্গেদহে বিদ্যুত বিল দেয়াকে কেন্দ্র করে মসজিদ কমিটির সেক্রেটারিকে বাটামপেটা

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার ডিঙ্গেদহের মখলেছুর রহমানকে বাটাম দিয়ে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। তিনি চুয়াডাঙ্গা জেলা …

Loading Facebook Comments ...