মঙ্গলবার , জানুয়ারি ১৬ , ২০১৮
?

কাজের মাধ্যমেই মানুষ চিরস্মরণীয় হয়ে থাকেন

চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের সচিবের বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদচুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের সচিবের বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদ

 

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের সচিব ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. লুৎফর রহমানের বিদায় সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। গতকাল বুধবার দুপুরে জেলা পরিষদের সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ সামসুল আবেদীন খোকন। প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার নিজাম উদ্দিন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক ও বিদায়ী অতিথি সচিব ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. লুৎফর রহমান। জেলা পরিষদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা রমজান আলীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৃনাল কান্তি দে, দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রফিকুল হাসান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) সৈয়দা নাফিস সুলতানা, জেলা প্রশাসনের নেজারত ডেপুটি কালেক্টর চিত্ত রঞ্জন দাস, সহকারী কমিশনার ফখরুল ইসলাম, পাপিয়া আক্তারসহ জেলা পরিষদের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদ সদস্য মুন্সি সিরাজুল ইসলাম, শহিদুল ইসলাম শাহান ও সংরক্ষিত আসনের সদস্য নুরুন্নাহার কাকলী। কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন প্রধান সহকারী ইসরাইল হোসেন ও সহকারী প্রকৌশলী সামাদুল ইসলাম।  বক্তব্যে জেলা প্রশাসক বলেন, জেলা পরিষদ জেলার একটি উন্নয়নমূলক প্রতিষ্ঠান। এটি জেলার উন্নয়নে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রাখে। প্রতিটি সরকারি দফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিময় নীতি মেনেই কাজ করতে হয়। অনেক সময় বদলি হয়ে চলে যেতে হয় অন্য দফতরে। কিন্তু তবুও কাজের মাধ্যমে ওই কর্মকর্তা বা কর্মচারী চিরস্মরণীয় হয়ে থাকেন। পরে বিদায়ী অতিথিকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা ও পুরস্কার তুলে দেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান। তিনি বিদায়ী অতিথির ভূয়সী প্রশংসা করতে গিয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন। তিনি বলেন, ২০১৭-২০১৮ সালের বাজট প্রণয়ন করে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। কিন্তু যিনি জেলার উন্নয়নমূলক কাজের দিক নির্দেশনা দেবেন, তিনিই চলে যাচ্ছেন। জেলা পরিষদের সকল উন্নয়নমূলক কর্মকা-ে বিদায়ী অতিথি সহযোগিতা করেছেন বলেও জানান চেয়ারম্যান। উল্লেখ্য, ড. লুৎফর রহমান গত বছরের ১৬ অক্টোবর চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদে সচিব ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করেন।


আরো দেখুন

শিক্ষাব্যবস্থা জতীয়করণসহ অবিলম্বে তাদের দাবি মেনে নেয়ার আহ্বান

চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুর ও ঝিনাইদহে ১১ দফা দাবিতে শিক্ষকদের মানবন্ধন শেষে স্মারকলিপি মাথাভাঙ্গা ডেস্ক: শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণসহ ১১ …

Loading Facebook Comments ...