ঢাকায় পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষ ভাঙচুর : অগ্নিসংযোগ

স্টাফ রিপোর্টার: আদালতে হাজিরা দিয়ে ফেরার পথে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার গাড়িবহরের পেছনে থাকা দলীয় নেতা-কর্মীদের সাথে পুলিশের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা পুলিশের একটি মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। তারা বেশ কয়েকটি গাড়িও ভাঙচুর করে। সংঘর্ষে বঙ্গবাজার, হাইকোর্ট মোড় ও সচিবালয় এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। পুলিশ বিএনপির ১৫ জন নেতা-কর্মীকে আটক করেছে। এর মধ্যে বিএনপির ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক ও জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক গোলরক্ষক আমিনুল হক ও ঢাকার ৩১ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর রফিকুল ইসলামও রয়েছেন।

পুলিশের অভিযোগ, বিনা কারণে জড়ো হওয়া বিএনপি ও ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা গাড়ি ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করেছে। অন্যদিকে বিএনপি নেতারা বলছেন, পুলিশ বিনা উস্কানিতে তাদের নেতা-কর্মীদের ওপর হামলা চালিয়েছিলো।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়া আদালতে হাজিরা দিয়ে ফেরার পথে বঙ্গবাজার এলাকায় বিএনপির নেতা-কর্মীরা মিছিল বের করেন। মিছিলটি শিক্ষা ভবনের দিকে পৌঁছুলে পুলিশ মিছিলকারীদের বাধা দিয়ে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। তখন একদল বঙ্গবাজারের দিকে ও অপরদল উল্টো ঘুরে জিরো পয়েন্টের দিকে পালিয়ে যায়। এ সময় সচিবালয়ের সামনের রাস্তা, বঙ্গবাজার ও হাইকোর্টের মোড় এলাকায় সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে। বিক্ষোভকারীরা সচিবালয়ের সামনে দিয়ে যাওয়ার পথে ‘ভাঙ গাড়ি’ বলে চিত্কার করতে করতে পার্কিং করা এবং চলতি পথের সরকারি বেসরকারি বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করে। এসব গাড়ির সামনের, পেছনের ও পাশের কাঁচগুলো ভাঙচুর করা হয়েছে।


আরো দেখুন

অবৈধ দখলদারদের কবলে চুয়াডাঙ্গা জেলা শহর

স্টাফ রিপোর্টার: অবৈধ দখলদারদের কবলে পড়েছে চুয়াডাঙ্গা জেলা শহর। চলাচলের সুবিধার্থে সড়ক সম্প্রসারণ করা হলেও …

Loading Facebook Comments ...