মঙ্গলবার , জানুয়ারি ১৬ , ২০১৮

সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে সক্ষম হবো

দেশব্যাপী উন্নয়ন মেলা উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী

মাথাভাঙ্গা ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়ন কর্মসূচিগুলো সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য সবার সহযোগিতা কামনা করে বলেছেন, আমরা বাংলাদেশকে উন্নত-সমৃদ্ধ সোনার বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তুলতে সক্ষম হবো ইনশাল্লাহ। সেই স্বপ্ন একদিন জাতিরপিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেখেছিলেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে একযোগে সকল জেলা-উপজেলায় অনুষ্ঠিত উন্নয়ন মেলার উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির ভাষণে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, সরকার যে কাজগুলো করেছে এবং ভবিষ্যতে যে কাজগুলো করতে যাচ্ছে তা সম্পর্কে জনগণকে ধারণা দিতেই এ মেলার আয়োজন। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিলো ‘উন্নয়নের রোল মডেল, শেখ হাসিনার বাংলাদেশ’। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি দেশবাসীকে এটুকু বলবো, উন্নয়ন মেলা যেটি তার সরকার করে যাচ্ছে, এই উন্নয়ন হচ্ছে জনগণের উন্নয়ন। গ্রামের মানুষ, তৃণমূলের মানুষের উন্নয়ন। এ উন্নয়ন হচ্ছে বাংলাদেশকে সমগ্র বিশ্বের দরবারে একটি সম্মানজনক অবস্থানে নিয়ে যাওয়ার লক্ষে। শেখ হাসিনা বলেন, ‘এ মেলায় যারা সম্পৃক্ত রয়েছেন তাদেরকে বলবো, যে কাজগুলো আমরা করতে পেরেছি এবং কাজগুলো ভবিষ্যতে করার পরিকল্পনা নিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে, সেগুলো সম্পর্কে যেমন জনগণকে সচেতন করা দরকার, তেমনি আমাদের উন্নয়ন কর্মসূচিগুলো যেন সুষ্ঠুভাবে পরিচালিত হয়, তার জন্য সকলের সহযোগিতা একান্তভাবে দরকার।’ তিনি বলেন, ‘এই উন্নয়ন যেন অব্যাহত থাকে সেই লক্ষ্য নিয়েই এই উন্নয়ন মেলার সূচনা।’
প্রধানমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার পর এই দেশকে গড়ে তোলার জন্য জাতিরপিতা মাত্র সাড়ে ৩ বছর সময় পেয়েছিলেন। এতো স্বল্প সময়ে কোনো যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ গড়ে তোলা সম্ভব হয়েছিলো কি না আমার জানা নেই। সেই অসাধ্য সাধন করেছিলেন বঙ্গবন্ধু। তার মতো বলিষ্ঠ নেতৃত্ব ছিলো বলেই এটা সম্ভব হয়েছিলো। এ সময় প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বরগুনা, ঝিনাইদহ, হবিগঞ্জ, গাইবান্ধা ও চাঁদপুর জেলার স্থানীয় জনগণের সাথে মতবিনিময় করেন।
চুয়াডাঙ্গায় ৩দিন উন্নয়ন ব্যাপী মেলা উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ মেলার উদ্বোধন করেন। এর আগে মেলা উপলক্ষে শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পুনরায় মেলা প্রাঙ্গণে এসে শেষ হয়। পরে আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়। সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক জিয়াউদ্দীন আহমেদ। প্রধান অতিথি ছিলেন কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাবের সচিব মো. আলমগীর। বিশেষ অতিথি ছেলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ সামসুল আবেদীন খোকন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আব্দুর রাজ্জাক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) পদোন্নতি পাওয়া পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুল হক বিশ্বাস, পৌর মেয়র ওবায়দুর রহমান চৌধুরী জিপু প্রমুখ। পরিচালনায় ছিলেন চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মুন্সি আবু সাঈদ। মেলায় বিভিন্ন দফতরের ৯৪ স্টল স্থান পেয়েছে। সন্ধ্যায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে জেলা শিল্পকলা একাডেমির শিল্পীরা সঙ্গীত পরিবেশন করেন। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় নারায়ন বন্দ্যোপাধ্যায়ের রচনায় আব্দুস সালাম তারা’র পরিচালনায় নাটক ’ভাড়াটে চাই’ মঞ্চায়ন করা হয়।
আলমডাঙ্গা ব্যুরো জানিয়েছে, সারাদেশের ন্যায় আলমডাঙ্গায় ৩দিন ব্যাপি উন্নয়ন মেলার উদ্বোধন করা হয়েছে। উদ্বোধন শেষে উপজেলা চত্বরে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনাসভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাহাত মান্নানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা হেলাল উদ্দীন। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী খালেদুর রহমান অরুন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শামিম আরা খাতুন, থানা অফিসার ইনচার্জ আবু জিহাদ ফখরুল আলম খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ইয়াকুব মাস্টার, উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাসুদ রানা, উপজেলা কৃষি অফিসার হাসিবুল হাসান, সোনালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপক শামসুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা সংগঠক ডা. সাহাবুদ্দিন শাবু, মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ শেখ নুর মোহাম্মদ জকু, মুক্তিযোদ্ধা মঈন উদ্দিন আহমেদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মুক্তিযোদ্ধা, মজিবর রহমান প্রমুখ। উন্নয়ন মেলায় ৩৯টি স্টল মেলার সৌন্দর্য বৃদ্ধি করেছে।
দামুড়হুদা প্রতিনিধি জানিয়েছেন, এ উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি উপজেলা শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালি শেষে উপজেলা পরিষদ চত্বরের মুক্তমঞ্চে দামুড়হুদা উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. রফিকুল হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি আলী আজগার টগর। বিশেষ অতিথি ছিলেন দামুড়হুদা উপজেলা চেয়ারম্যান মাওলানা আজিজুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজুল আলম ঝন্টু। উপস্থিত ছিলেন দামুড়হুদা মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ আকরাম হোসেন, চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান এসএএম জাকারিয়া আলম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ছালমা জাহান পারুল, দর্শনা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম, উপজেলা কৃষি অফিসার সুফি মোহা. রফিকুজ্জামান, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মশিউর রহমান, উপজেলা প্রকৌশলী মাহবুব উল হক, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী আব্দুর রশিদ, উপজেলা শিক্ষা অফিসার সাকী সালাম, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল মতিন, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আইয়ুব আলী, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা ছানোয়ার হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি রবিউল হোসেন, ইউপি চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন, আজিজুল হক আজিজ, খলিলুর রহমান ভুট্টু, মোহাম্মদ আলী শাহ মিন্টু, প্রভাষক শরীফুল আলম মিল্টন, চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম, শাহ মোহা. এনামুল করীম ইনু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।
জীবননগর ব্যুরো জানিয়েছে, জীবননগর উপজেলায় ৩দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলার উদ্বোধন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু মো. আব্দুল লতিফ অমল। উপজেলা নির্বাহী অফিসার সেলিম রেজার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হাজি হাফিজুর রহমান ও উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়েশা সুলতানা লাকি। এ ছাড়াও বক্তব্য রাখেন উপজেলা কৃষি অফিসার মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রফিকুল ইসলাম, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার আফাজ উদ্দিন, উপজেলা সমবায় অফিসার মোতাহার হোসেন, উপজেলা পল্লি উন্নয়ন অফিসার মেহেদী হাসান, উপজেলা সিনিয়র মৎস্য অফিসার ফরহাদুর রেজা প্রমুখ। উন্নয়ন মেলায় ১৭ স্টল স্থাপন করে সরকারের সাফল্য তুলে ধরেছে।
মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, মেহেরপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ৩দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করেন। এ উপলক্ষে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে জেলা প্রশাসন চত্বর থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে ড. শহীদ সামসুজ্জোহা উদ্যানে গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালির নেতৃত্ব দেন প্রধান অতিথি বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব এসএম গোলাম ফারুক। পরে জেলা প্রশাসক পরিমল সিংহ’র সভাপতিত্বে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উন্নয়ন মেলার শুভ উদ্বোধন করেন। জেলা প্রশাসক পরিমল সিংহ জেলার বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পগুলো নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সাথে কথা বলেন এবং অবগত করেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ গোলাম রসুল, স্থানীয় সরকারের উপপরিচালক খায়রুল হাসান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) শেখ ফরিদ আহামেদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আাব্দুল খালেক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল মালেক আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা আসকার আলী, শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাড. ইয়ারুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি শামীম আরা হীরা, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সাবেক কমান্ডার বশির আহম্মেদ প্রমুখ। এবার উন্নয়ন মেলায় ৫৯ স্টলে অংশগ্রহণ করেন বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান।
এদিকে সন্ধ্যায় জেলা শিল্পকলা একাডেমির উদ্যোগে মেলার মাঠে মফিজুর রহমান মুক্তমঞ্চে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। জেলা শিল্পকলা ও মেহেরপুরের স্থানীয় শিল্পীরা সঙ্গীত পরিবেশন করেন।
গাংনী প্রতিনিধি জানিয়েছেন, মেহেরপুর গাংনী উপজেলা পরিষদ চত্ব¡রে শুরু হয়েছে উন্নয়ন মেলা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে মেলা উপলক্ষে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিভিন্ন স্টলে উন্নয়ন কার্যক্রম তুলে ধরছে সরকারি দপ্তরগুলো। গাংনী উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। শোভাযাত্রা শেষে মেলা প্রাঙ্গণে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিষ্ণুপদ পালের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন গাংনী থানার ওসি হরেন্দ্র নাথ সরকার, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সাহিদুজ্জামান খোকন, জেলা আইনজীবী সমিতি সভাপতি একেএম শফিকুল আলম, জেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক নুরজাহান বেগম, মহিলা কলেজ অধ্যক্ষ খোরশেদ আলম, গাংনী প্রেসক্লাব সভাপতি রমজান আলী ও কাথুলী ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান রানা।
মেলায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করছে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিল্পিবৃন্দ। এছাড়াও সকালে জামানত জমা দিয়ে সন্ধ্যার মধ্যে গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুত সংযোগ দিয়ে সবাইকে তাক লাগিয়ে দেয় পল্লী বিদ্যুত। সরকারের উন্নয়নের অংশ হিসেবে মেলা প্রাঙ্গণে ১৪ জনের কাছ থেকে নতুন সংযোগর জন্য আবেদন গ্রহণ করা হয়। এর মধ্যে গাংনী মহিলা ডিগ্রি কলেজ ও ১২টি আবাসিক ভবন। একই দিনে প্রয়োজনীয় প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে স্থাপন করা হয় নতুন মিটার।
মুজিবনগর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, মুজিবনগর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শুরু হয়েছে ৩ দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলা। এ উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে উপজেলা পর্যায়ে উন্নয়ন শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মুজিবনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিতে নেতৃত্ব দেন মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাহিদা আক্তার। র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। মুজিবনগর থানা ইনচার্জ মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম, উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান, কৃষি অফিসার মুহা. মোফাকখারুল ইসলাম, উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আনোয়ারুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান আয়ূব হোসেন, মোনাখালী ইউপি চেয়ারম্যান মফিজুর রহমান, দারিয়াপুর ইউপি চেয়ারম্যান তৈফিকুল বারী বকুল, বাগোয়ান ইউপি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলামসহ উপজেলার সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারী, বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীসহ নানা শ্রেণিপেশার মানুষ র‌্যালিতে অংশ নেয়। মুজিবনগর উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে আয়োজিত মেলার স্টলে বিভিন্ন দপ্তর উন্নয়ন কর্মকা- তুলে ধরছে।
ঝিনাইদহ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ঝিনাইদহে ৩ দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলা শুরু হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ মেলার উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঝিনাইদহে এ সময় উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের সচিব মফিজুল ইসলাম, খুলনা বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন মিয়া, ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও শৈলকুপা আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল হাই, মহেশপুর-কোটচাঁদপুর আসনের সংসদ সদস্য নবী নেওয়াজ, কালীগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার, জেলা প্রশাসক জাকির হোসেন, সরকারি কেসি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. বিএম রেজাউল করিম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র আলহাজ সাইদুল করিম মিন্টু, সিভিল সার্জন ডা. রাশেদা সুলতানা, গণপূর্তের নির্বাহী প্রকৌশলী কায়সার ইবনে সাঈখ, এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল মালেকসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন। পরে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে উন্নয়ন মেলার উদ্বোধন উপলক্ষে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি বিভিন্ন সড়ক ঘুরে একই স্থানে এসে শেষ হয়। ৩দিনব্যাপী এই মেলায় সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সেবা কার্যক্রম ও সরকারের নানামুখী উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে ৭১ স্টল অংশ নেয়।
মহেশপুর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, মহেশপুর উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে ৩দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলা শুরু হয়েছে। উন্নয়নের রোল মডেল, শেখ হাসিনার বাংলাদেশ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে একযোগে দেশের সকল জেলা ও উপজেলা উন্নয়ন মেলার উদ্বোধর করেন। এ উপলক্ষে মহেশপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. কামরুল ইসলামের উদ্যোগে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিতে উপজেলা কৃষি অফিসার আবু তালহা, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম, মহেশপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক এটিএম খাইরুল আনাম, উপজেলা বিআরডিবি চেয়ারম্যান মীর সুলতানুজ্জামান লিটনসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি দফতরের কর্মকর্তা কর্মচারী ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ছাত্র-ছাত্রীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করে।
কুষ্টিয়া প্রতিনিধি জানিয়েছেন, কুষ্টিয়ার মিরপুরে ৩দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলার শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা চত্বরে এ মেলার উদ্বোধন করেন মিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল আরেফিন। মেলা উপলক্ষে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করেন। উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম জামাল আহমেদ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বাহাদুর শেখ, শারমিন আক্তার নাসরিন, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সূবর্ণা রানী সাহা, ওসি রফিকুল ইসলাম, কৃষি কর্মকর্তা রমেশ চন্দ্র ঘোষ, জেলা পরিষদের সদস্য আলহাজ মহাম্মদ আলী জোয়ার্দ্দার, উপজেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক আহাম্মদ আলী প্রমুখ।


আরো দেখুন

দেড় বছর কারাভোগের পর আপন ঠিকানায় ফিরলো দুই কিশোর

দর্শনা জয়নগর সীমান্তে বিজিবি-বিএসএফের পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত দর্শনা অফিস: ঠিক কবে যশোরের কোনো এক সীমান্ত …

Loading Facebook Comments ...