খালেদা জিয়া আরও তিন মামলায় গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার: জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় কারান্তরিন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে তেজগাঁও ও শাহবাগ থানায় করা দুটি এবং কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে দায়ের করা নাশকতার মামলায় শ্যোন অ্যারেস্ট দেখানো হয়েছে। কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিন আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। নতুন করে শ্যোন অ্যারেস্ট হওয়ায় অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার পাশাপাশি এ দুই মামলায়ও পৃথক করে জামিন নিতে হবে বিএনপি চেয়ারপারসনকে। এদিকে রায়ের সত্যায়িত অনুলিপি না পাওয়ায় গতকাল পর্যন্ত রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করতে পারেননি খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। আজ রায়ের কপি পাওয়ার আশা তাদের।

শ্যোন অ্যারেস্ট দেখানোর বিষয়ে কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিন আহমেদ সাংবাদিকদের বলেন, ‘রাজধানীর তেজগাঁও, শাহবাগ ও কুমিল্লা থানার তিনটি মামলায় জারি করা গ্রেফতারি পরোয়ানার কপি আমরা হাতে পেয়েছি। এখন তার মুক্তির জন্য এ তিন মামলায় জামিন নিতে হবে।’ সব মিলিয়ে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে পাঁচটি গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি রয়েছে। এ বিষয়ে কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) তানভির সালেহিন ইমন বলেন, ‘কুমিল্লায় নাশকতার ঘটনায় দুটি মামলা করা হয়েছিলো। ওই দুই মামলায়ই খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। নিয়ম অনুযায়ী আমরা পরোয়ানার কপি ঢাকায় পাঠিয়ে দিয়েছি।’ এখন ঢাকা থেকেই এ বিষয়ে পরবর্তী ব্যবস্থা নেবে বলে তিনি জানান। রায়ের সার্টিফায়েড কপির বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির আইনবিষয়ক সম্পাদক ও খালেদা জিয়ার অন্যতম আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া বলেন, ‘রায়ের পরই আমরা সার্টিফায়েড কপির জন্য আবেদন করেছি। সোমবার পর্যন্ত আমাদের কপি সরবরাহ করা হয়নি। সার্টিফায়েড কপি পাওয়ার পরই আমরা আপিল ও জামিনের বিষয়ে প্রক্রিয়া শুরু করব। আশা করছি মঙ্গলবার কপি হাতে পাব।’ পাঁচটি গ্রেফতারি পরোয়ানার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এসব গ্রেফতারি পরোয়ানা কীভাবে নিষ্পত্তি করা যায় সে বিষয়টি আমরা দেখছি।’


আরো দেখুন

চুয়াডাঙ্গায় সুধীজনদের সাথে মতবিনিময়সভায় নবাগত জেলা প্রশাসক গোপাল চন্দ্র দাস

  রাষ্ট্রের সেবক হিসেবে ভালো কাজের দ্বারা জনগণের মনে থাকতে চাই স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা জেলা …

Loading Facebook Comments ...