বৃহস্পতিবার , আগস্ট ১৬ , ২০১৮

আইনি জটিলতা দ্রুত নিরসন হোক

ভোটগ্রহণের তারিখের ৯ দিন আগে আদালতের নির্দেশে স্থগিত হয়ে গেল গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন। আগামী ১৫ মে খুলনার সঙ্গে এই সিটি করপোরেশনেও নির্বাচন হওয়ার কথা ছিলো। সীমান্ত-সংক্রান্ত জটিলতায় আদালতে করা রিট আবেদন শুনানি করে হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ এই আদেশ দিয়েছেন। নির্বাচনী তফশিল ঘোষণার পর থেকেই গাজীপুর সিটি করপোরেশন এলাকায় উৎসবমুখর পরিবেশ তৈরি হয়েছিলো। দলীয় প্রতীকে মেয়র পদে নির্বাচনের কারণে দলের নেতাকর্মীরা নির্বাচনী প্রচারে অংশ নিয়েছিলেন। একটি জাতীয় নির্বাচনে যেকোনো আসনে যে ধরনের উত্তাপ দেখা যায়, তার সব কিছুই ছিলো গাজীপুরে। নির্বাচন স্থগিতের পর সেখানে নিস্তব্ধতা নেমে এসেছে। প্রার্থী ও তাঁদের সমর্থকদের পাশাপাশি নির্বাচন কমিশনও হতাশ।

সীমান্ত সংক্রান্ত যে এলাকা নিয়ে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন স্থগিত হলো, সেই এলাকাটি হচ্ছে সাভারের শিমুলিয়া ইউনিয়নের ছয়টি মৌজা। ২০১২ সালের ২৪ জানুয়ারি গাজীপুর সিটি করপোরেশন গঠনের প্রজ্ঞাপনে গাজীপুর ও টঙ্গী পৌর এলাকাসহ সম্প্রসারিত পৌর এলাকা একীভূত করা হয়। ২০১৩ সালের ১৬ জানুয়ারি স্থানীয় সরকার বিভাগ একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে ঢাকা জেলার সাভার উপজেলার শিমুলিয়া ইউনিয়নের ছয়টি মৌজা গাজীপুর সিটি করপোরেশনের আওতাভুক্ত করে। তখনই এ বিষয়ে আপত্তি তোলা হয়েছিল। স্থানীয় সরকার বিভাগ সে আপত্তি আমলে না নিলে বিষয়টি আদালতে গড়ায়। আদালত রিট আবেদনকারীর আপত্তি নিষ্পত্তির জন্য আদেশ দিয়েছিলেন কিন্তু সে আপত্তি নিষ্পত্তি না করেই ২০১৬ সালে শিমুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। শিমুলিয়ার এ ৬টি মৌজার অধিবাসীরা সে নির্বাচনে ভোটও দিয়েছেন। গত ৪ মার্চ এই ছয় মৌজাকে গাজীপুর সিটি করপোরেশনে রেখে আরেকটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। বিষয়টি নতুন করে আদালতে গড়ায়।

পর্যালোচনা করলে দেখা যায়, যে ছয়টি মৌজা নিয়ে আপত্তির কারণে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন স্থগিত হয়ে গেল, এই সমস্যাটি পুরোনো। সদিচ্ছা থাকলে অনেক আগেই এ সমস্যার সমাধান করা যেত। হয়তো এ ব্যাপারে নির্বাচন কমিশনের কিছুই করার নেই কিন্তু খোঁজখবর অন্তত রাখা যেতো। এ ধরনের ঝামেলার কারণে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন স্থগিত হয়ে গেছে। এ ধরনের মামলা দীর্ঘদিন ধরে চলে। যেখানে এলাকার উন্নয়ন নির্ভর করে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের ওপর, সেখানে জনপ্রতিনিধি না থাকলে কি উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হবে না? বিষয়টি জরুরি ভিত্তিতে ভাবা দরকার। জটিলতা নিরসন করে গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের বাধা দূর করা আবশ্যক।


আরো দেখুন

হাসপাতালে র্দীঘদনি ধরে এন্টস্নিকে ভনেম নইে

গরমে ও বর্ষায় সাপের উপদ্রব বাড়ে। বিষধর সাপে কাটলে এবং বিষ প্রয়োগ করলে এন্টি¯েœক ভেনম …

Loading Facebook Comments ...