বৃহস্পতিবার , আগস্ট ১৬ , ২০১৮

পণ্যের সরবরাহ যদি পর্যাপ্ত না হয় তবে তা সুখবর নয়

 

প্রতি বছর রমজানে দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল রাখতে খোলাবাজারে পণ্য বিক্রি করে টিসিবি। স্বাভাবিকভাবেই বিষয়টি ইতিবাচক। কেননা রমজান উপলক্ষে দ্রব্যমূল্য অস্থিতিশীল হয়ে ওঠার ঘটনা ঘটে। কিন্তু যখন এমন বিষয় সামনে আসছে যে, টিসিবির পণ্য বিক্রির উদ্যোগকে অনেকেই স্বাগত জানালেও চাহিদার তুলনায় সরবরাহ পর্যাপ্ত নয় বলে মনে করছেন সাধারণ ক্রেতা ও বাজার সংশ্লিষ্টরা। এমনকি রাজধানীর দুই কোটির অধিক মানুষের জন্য মাত্র আড়াই ডজন ট্রাকে নিত্যপণ্য বিক্রি দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি নিয়ন্ত্রণে কতোটুকু ভূমিকা রাখে সে প্রশ্নও উঠেছে। এই পরিস্থিতিতে সংশ্লিষ্টদের কর্তব্য হওয়া দরকার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করা। কেননা পণ্যের সরবরাহ যদি পর্যাপ্ত না হয় তবে তা সুখবর নয়।

দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়েও সরকারের বিপণন সংস্থা টিসিবির ন্যায্যমূল্যের পণ্য মিলছে না। এছাড়া চাহিদার তুলনায় চিনি, ছোলা, সয়াবিন তেল ও খেজুরের সরবরাহ কম হওয়ায় নির্দিষ্ট সময়ের আগেই তা শেষ হয়ে যাচ্ছে। ফলে সাশ্রয়ী মূল্যে এসব পণ্য কিনতে না পেরে স্বাভাবিকভাবেই ক্ষোভ প্রকাশ করছেন ভোক্তারা। তথ্য মতে, মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর খামারবাড়ির সামনে টিসিবির ট্রাক সেলের লাইনে দাঁড়িয়ে একজন সরকারি চাকরিজীবী মসুর ডাল, চিনি ও তেলের সঙ্গে খেজুর কিনতে চাইলে জবাব আসে খেজুর শেষ। এভাবে অনেকেই চাহিদামাফিক পণ্য না পাওয়ায় হতাশা ব্যক্ত করছেন। আমরা মনে করি, যখন এমন বিষয় সামনে আসছে যে, টিসিবি যেন চাহিদা বিবেচনা করে পর্যাপ্ত পণ্য সরবরাহ করে- কেননা তা না হলে রমজানে বাজার নিয়ন্ত্রণে সরকারের নেয়া পদক্ষেপের সুফল পাবেন না ভোক্তাসাধারণ। তখন তা এড়িয়ে যাওয়া সমীচীন নয়।

সরকার ভোক্তাদের সুফল নিশ্চিত করতে রমজানে বাজার নিয়ন্ত্রণে পদেক্ষপ নেবে, আর যদি পর্যাপ্ত সরবরাহ না থাকার কারণে তা বাধাগ্রস্ত হয় তবে সেটি নিশ্চিতভাবেই উদ্বেগের। ফলে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে সরবরাহ বৃদ্ধি করার বিষয়টি যেমন আমলে নিতে হবে, তেমনিভাবে রমজান উপলক্ষে বাজার নিয়ন্ত্রণের উদ্দেশ্য যেন সফল হয় সেটিও বিবেচনা করতে হবে। এমন তথ্যও জানা গেছে যে, মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ের গেটে টিসিবির ট্রাকের সামনে ছিলো ক্রেতাদের লম্বা লাইন। সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বিক্রির কথা থাকলেও আগেই শেষ হয়ে যায় খেজুর, চিনি, ছোলা ও সয়াবিন তেল। আমলে নেয়া দরকার, শুধু সচিবালয় গেট এলাকায় নয়, রাজধানীর অধিকাংশ পয়েন্টেই দুপুরের মধ্যেই চিনি, ছোলা ও সয়াবিন তেল শেষ হয়ে যায় বলেও জানা যায়। ফলে সৃষ্ট পরিস্থিতি আমলে নিয়ে যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণ জরুরি বলেই প্রতীয়মান হয়। এ প্রসঙ্গে টিসিবির ডিলার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতিও বলেছেন, টিসিবির সরবরাহের তুলনায় মসুর ডাল, চিনি, ছোলা, ভোজ্যতেল ও খেজুরের চাহিদা অনেক বেশি। ফলে এর সরবরাহ বৃদ্ধিতে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে এমনটি কাম্য। বাজার মূল্য থেকে কম দামে টিসিবির পণ্য পাচ্ছেন ভোক্তারা, যা সন্দেহাতীতভাবেই ইতিবাচক। আর এটি রমজান উপলক্ষে বাজার নিয়ন্ত্রণেও সহায়ক হবে বলেই আমরা মনে করি। যদিও টিসিবির মুখপাত্র বলেছেন, তাদের সক্ষমতা সীমিত। সে অনুযায়ীই পণ্য বিক্রি করা হয়। সেক্ষেত্রে সরবরাহ কম- এমন সীমাবদ্ধতার বিষয়টিকে আমলে নিয়ে সরবরাহ বৃদ্ধি করা যায় কি-না, তা সংশ্লিষ্টদের বিবেচনায় নেয়া সমীচীন। কেননা সরবরাহ পর্যাপ্ত হলে ভোক্তারা আরও বেশি উপকৃত হবেন। সামগ্রিক বিষয়গুলো আমলে নিয়ে সংশ্লিষ্টরা প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিশ্চিত করবেন।


আরো দেখুন

হাসপাতালে র্দীঘদনি ধরে এন্টস্নিকে ভনেম নইে

গরমে ও বর্ষায় সাপের উপদ্রব বাড়ে। বিষধর সাপে কাটলে এবং বিষ প্রয়োগ করলে এন্টি¯েœক ভেনম …

Loading Facebook Comments ...