দামুড়হুদার লোকনাথপুরে স্কুলছাত্রকে বেত্রাঘাতের ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে লিখিত অভিযোগ

শহিদকে হাসপাতাল দেখতে এসে বিচারের আশ্বাস দিলেন হাউলী চেয়ারম্যান : সহকারী শিক্ষক দিয়েছেন হুমকি
স্টাফ রিপোর্টার: দামুড়হুদার লোকনাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকের বেত্রাঘাতে স্কুলছাত্র শহিদ আহত হওয়ার ঘটনায় সুষ্ঠু বিচার চেয়ে অভিযাগ করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার শহিদের নানি মমতাজ বেগম উপজেলা শিক্ষা অফিসার ও দামুড়হুদা মডেল থানা বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন। এদিকে আহত স্কুলছাত্রকে দেখতে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে আসেন হাউলী ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী শাহ মিন্টু। গতকাল মঙ্গলবার তিনি হাসপাতালে আহত স্কুলছাত্র শহিদের পাশে দাঁড়ান। তার শারীরিক খোঁজখবর নেন এবং এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দেন।
জানা গেছে, গত দিন পনের আগে দামুড়হুদার লোকনাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১ম শ্রেণির ছাত্র শহিদকে ওই স্কুলের সহকারী শিক্ষক উম্মে সালমা খাতুন বাঁশের বেত দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। পরে স্কুলছাত্র শহিদকে গুরুতর আহতাবস্থায় গত ৯ জুলাই সোমবার সকালে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার ডাক্তারি পরীক্ষা শেষে ডান পাজরের নিচে পিঠে পচন ধরেছে বলে চিকিৎসক জানান। অস্ত্রপচারের মাধ্যমে তার ক্ষতস্থানে জমে থাকা পুজ অপসারণ করা হবে বলে জানান সার্জারী কনসালটেন্ট ডা.তারিক হাসান শাহিন। আগামী বৃহস্পতিবার সদর হাসপাতালে শহিদের শরীরে অস্ত্রপচার করা হবে বলে জানান চিকিৎসক। এদিকে এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে দামুড়হুদা উপজেলা শিক্ষা অফিসার ও দামুড়হুদা মডেল থানা বরাবর লিখিত অভিযোগ পেশ করেছেন শহিদের নানি মমতাজ বেগম। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে তিনি এ অভিযোগ পেশ করেন। এদিকে গতকাল শহিদকে দেখতে তার পরিবারের লোকজন হাসপাতালে যাওয়ার পথে লোকনাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আখতারুল হক দেখে নেয়ার হুমকি দিয়েছে বলে শহিদের পরিবারের লোকজন জানান। এ ব্যাপারে শিক্ষক আখতারুল হকের নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান, আমার সম্মান নষ্ট করার জন্য তারা আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করেছেন।


আরো দেখুন

আলমডাঙ্গার সাব রেজিস্টারকে অপসারণের দাবিতে দলিল লেখক সমিতি নিকট কলম বিরতি ও স্মারকলিপি প্রদান

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: আলমডাঙ্গার সাব রেজিস্টারকে অপসারণের দাবিতে দলিল লেখক সমিতি নিকট কলম বিরতি ও স্মারকলিপি …

Loading Facebook Comments ...