মহেশপুরে সড়ক ডাকাতির সময় হাতেনাতে ডাকাত আটক

মহেশপুর প্রতিনিধি: কালীগঞ্জ-জীবননগর সড়কের ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার কৃষ্ণচন্দ্রপুর মাঠে বাস ডাকাতির সময় হাতেনাতে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের হোতা রবিলকে (৩৫) আটক করা হয়েছে। তবে অন্য ডাকাত সদস্যরা কয়েক লাখ টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে পালিয়েছে।
থানা ও বাসের যাত্রী সূত্রে প্রকাশ, মঙ্গলবার রাত ২টার দিকে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা জেআর পরিবহন ও দর্শনা ডিলাক্সসহ পিকআপ ও নছিমন করিমনে মহেশপুর উপজেলার কৃষ্ণচন্দ্রপুর বাকড়ার খালনামক স্থানে ডাকাতরা গাছ ফেলে প্রায় একদেড় ঘণ্টা ধরে ডাকাতি করে। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতরা পালিয়ে যায়। এ সময় রবিউল নামে এক ডাকাত আটক হয়। সে ঝিনাইদহের কুলবাড়ীয়া গ্রামের মহিউদ্দিনের ছেলে। ডাকাতির কবলে পড়া জে.আর পরিবহনের সুপার ভাইজার নাছিম উদ্দিন জানায়, ঘটনাস্থলে পৌছুলেই তারা দেখতে পায় একটি পিকআপ ও একটি নছিমন আটকানো আছে এবং সামনে একটি গাছ ফেলা আছে। ডাকাতরা গাড়ির মধ্যে উঠে তার কাছে থাকা ১১ হাজার টাকা, জীবননগর থানার এক পুলিশ সদস্য সাইফুজ্জামানের কাছ কাছ থেকে ১২ হাজার টাকা ও ৩টি মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। ৩ জন মহিলা যাত্রীর কাছ থেকে স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকাসহ সকলের মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। এর পরপরই দর্শনা ডিলাক্স হাজির হলে ডাকাতরা গাড়িতে উঠে লুটতরাজ শুরু করে। কিছুক্ষন পর পুলিশের গাড়ি হাজির হলে ডাকাতরা পালাতে থাকে। এ সময় আমি ও বাসের যাত্রী পুলিশ সদস্য সাইফুল মিলে এক ডাকাতকে ধরে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করি। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ডাকাতরা কয়েক লাখ টাকার মালামাল নিয়ে পালিয়েছে। এ বিষয়ে হাইওয়ে ডিউটিরত এএসআই সিরাজ বাদী হয়ে মহেশপুর থানায় একটি ডাকাতি মামলা করেছেন।
মহেশপুর থানার ওসি লস্কর জাহিদুল হক বলেন, আটককৃত ডাকাত রবিউল একজন আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য। তার বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া (ইবি) থানায় একটি হত্যা মামলা ও ঝিনাইদহ সদর থানায় একাধিক মাদক মামলা রয়েছে। ওসি আরও জানায়, তার কাছ থেকে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। আরও তথ্য পাওয়ার জন্য ৭দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।


আরো দেখুন

চুয়াডাঙ্গার গড়াইটুপি ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে গণসংযোগকালে আলী আজগার টগর এমপি

চলমান উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে আবারও নৌকা প্রতীকে ভোট দিন বেগমপুর প্রতিনিধি: আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে …

Loading Facebook Comments ...