????????????????????????????????????

চুয়াডাঙ্গা চেম্বারের আয়োজনে সংর্বধনা অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত দিলীপ কুমার আগরওয়ালা

আমি এ অর্জন চুয়াডাঙ্গাবাসীর জন্য উৎস্বর্গ করলাম
স্টাফ রিপোর্টার: এফবিসিসিআই’র পরিচালক বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির সাধারণ সম্পাদক ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইউনিয়ন গ্রুপ ও তারা দেবী ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান চুয়াডাঙ্গার কৃতিসন্তান দিলীপ কুমার আগরওয়ালা ব্যবসা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ সিআইপি নির্বাচিত হওয়ায় সংবর্ধনা জানায় চুয়াডাঙ্গা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি। চেম্বার সভাপতি ইয়াকুব হোসেন মালিকের সভাপতিত্বে চেম্বার ভবনে অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান পিপিএম, বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা পৌর মেয়র ওবায়দুর রহমান চৌধুরী জিপু, চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাব সভাপতি দৈনিক মাথাভাঙ্গা পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক সরদার আল আমিন, দোকান মালিক সমিতির সভাপতি আসাদুল হোসেন জোয়ার্দ্দার লেমন ও সংবর্ধিত অতিথি দিলীপ কুমার আগরওয়ালা।
পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত ও গীতাপাঠের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সূচনালগ্নে আমন্ত্রিত অতিথি ম-লীকে ফুলেল শুভেচ্ছা প্রদান করেন চেম্বারের সম্মানিত পরিচালকবৃন্দ। শুভেচ্ছা পর্বে বক্তব্য রাখেন দোকান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ইবরুল হাসান জোয়ার্দ্দার, তারা দেবী ফাউন্ডেশনের সভাপতি অধ্যাপক শেখ সেলিম, দোকান মালিক সমিতির বাবু জোয়ার্দ্দার, মাফিজুর রহমান মাফি ও নাসির আহাদ জোয়ার্দ্দার।
প্রধান অতিথি পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান বলেন, দিলীপ কুমার আগরওয়ালা তার আপন কৃতিত্বের মহিমায় ভাস্বর। একজন সফল মানুষকে চিনতে ও জানতে হলে তাকে জানতে হবে। একজন স্বপ্নবাজ ব্যক্তি কঠোর পরিশ্রম করে তার লক্ষ্যে পৌঁছুতে পারে।
সংবর্ধিত অতিথি দিলীপ কুমার আগরওয়ালা বলেন, আমি যে সম্মান বয়ে এনেছি তা চুয়াডাঙ্গাবাসীর জন্য বাহক। এ অর্জন শুধু আমার জন্য গৌরবের বিষয় নয়। চুয়াডাঙ্গার ব্যবসায়ী তথা চুয়াডাঙ্গাবাসীর গৌরব। আমার এ অর্জন চুয়াডাঙ্গাবাসীর জন্য উৎস্বর্গ করলাম। তিনি আক্ষেপ করে আরও বলেন বাংলাদেশে স্বাধীনতার ৪৭ বছরে চুয়াডাঙ্গায় মাত্র ২জন সিআইপি পদে ভূষিত হয়ে হয়েছেন। যা দুঃখজনক। তিনি কৃতজ্ঞতা সহকারে বলেন আমি চুয়াডাঙ্গা চেম্বারের কাছে ঋণী। এ ঋণ শোধ করার মতো নয়।
দিলীপ কুমার আগরওয়ালা তারা দেবী ফাউন্ডেশনের কার্যক্রম তুলে ধরে বলেন, আমি আমার মায়ের আহ্বানে দুঃখী মানুষের সেবাই এ প্রতিষ্ঠান করেছি। আমি অর্থ চাই না চাই শুধু সহযোগিতা। শুধু মনে রাখবেন আমি আপনাদের দিলীপ। আপনাদের কাছে আমার অন্য কোনো পরিচয় নেই।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চুয়াডাঙ্গা পৌর মেয়র ওবায়দুর রহমান চৌধুরী জিপু বলেন, দিলীপ দাদা চুয়াডাঙ্গার আর্থসামাজিক উন্নয়নে যে কাজগুলো করছেন তা অতুলনীয়। বিশেষ অতিথি সরদার আল আমিন বলেন, আজ একজন স্বার্থক মানুষের গল্প শুনে ভালো লাগছে। দিলীপ কুমার আগরওয়ালা শুধু নিজে সম্মানিত হননি তিনি সিআইপি নির্বাচিত হয়ে চুয়াডাঙ্গাবাসীকেও সম্মানিত করেছেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সাংবাদিক খাইরুল ইসলাম।


আরো দেখুন

অবৈধ দখলদারদের কবলে চুয়াডাঙ্গা জেলা শহর

স্টাফ রিপোর্টার: অবৈধ দখলদারদের কবলে পড়েছে চুয়াডাঙ্গা জেলা শহর। চলাচলের সুবিধার্থে সড়ক সম্প্রসারণ করা হলেও …

Loading Facebook Comments ...