বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও মুক্তির দাবিতে প্রতীকী অনশন ক

মাথাভাঙ্গা ডেস্ক: বেগম খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও মুক্তির দাবিতে প্রতীকী অনশন কর্মসূচি পালন করেছে বিএনপি। গতকাল বুধবার সকাল ১০ থেকে দুপুর ১২ পর্যন্ত এ প্রতীকী অনশন পালন করা হয়। মেহেরপুরে কর্মসূচির কোনো খবর পাওয়া না গেলেও কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে চুয়াডাঙ্গায় পৃথক তিন স্থানে প্রতীকী অনশনের আয়োজন করা হয়। প্রতীকী অনশন কর্মসূচিতে বক্তব্য দিতে গিয়ে বিএনপি নেতারা বলেন, সরকার চায় না খালেদা জিয়া জামিনে মুক্তি পাক। সেই জন্য আইনি প্রক্রিয়ায় তার মুক্তি সম্ভবপর নয়। তার মুক্তির একটিই পথ- সেটি হলো রাজপথ। মূল মামলায় জামিন হওয়ার পরও সরকার ষড়যন্ত্র করে খালেদা জিয়াকে কারাগারে বন্দি করে রেখেছে। খালেদা জিয়াকে ছাড়া, বিএনপিকে ছাড়া অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হবে না। বক্তারা আরও বলেন, সরকার যতোই ষড়যন্ত্র করুক না কেনো, ২০১৪ সালের মতো একতরফা নির্বাচন দেশে আর হতে দেয়া হবে না। বারবার জনগণের সাথে প্রতারণা করা যায় না। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারীর মতো নির্বাচন এ দেশে আর হবে না। বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করেই আমরা আগামী নির্বাচন করবো। আজ সারাদেশ ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। আগামী নির্বাচন হতে হবে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে। শেখ হাসিনার অধীনে কোনো নির্বাচন হবে না। বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির পাশাপাশি তার সুচিকিৎসারও জোর দাবি জানান বক্তারা।
চুয়াডাঙ্গা পৌর বিএনপি সভাপতি শহিদুল ইসলাম রতন এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে চুয়াডাঙ্গা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে জেলা বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের সামনে প্রতীকী অনশন পালন করা হয়। সভাপতিত্ব করেন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি এম জেনারেল ইসলাম। প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক অ্যাড. ওয়াহেদুজ্জামান বুলা। বিশেষ অতিথি ছিলেন পৌর বিএনপির সভাপতি জেলা বিএনপির সদস্য শহিদুল ইসলাম রতন, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জেলা বিএনপির সদস্য আবু জাফর মন্টু, জেলা বিএনপির সদস্য এসকে সাদী, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মনিরুজ্জামান মনি, পৌর বিএনপি নেতা রবিউল ইসলাম লিটন, জেলা যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি আশরাফ বিশ্বাস মিল্টু, যুবদল নেতা আরিফুজ্জামান পিন্টু, মামুন রেজা সবুজ, হাজি রবিউল মল্লিক, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক এমএ তালহা, যুগ্ম-সম্পাদক মঞ্জুরুল জাহিদ, জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম-সম্পাদক জুয়েল মাহমুদ, জেলা ওলামা দলের সভাপতি মো. ফজলুর রহমান, মোমিনপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি সাহাদত হোসেন মাস্টার, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম প্রমুখ।
চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপি সদস্য হাজি রবিউল ইসলাম বাবলু এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন, বেগম খালেদা জিয়ার সু-চিকিৎসা ও নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির উদ্যোগে সকাল ১১ থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত কেদারগঞ্জস্থ দলীয় কার্যালয়ের সামনে প্রতীকী অনশন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভাপতিত্ব করেন চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মীর্জা ফরিদুল ইসলাম শিপলু। প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির আহ্বায়ক মুহা. অহিদুল ইসলাম বিশ্বাস। প্রধান বক্তা ছিলেন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য হাজি রবিউল ইসলাম বাবলু। বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের যুগ্ম-সম্পাদক অ্যাড. মানি খন্দকার, জেলা বিএনপির সাবেক দফতর সম্পাদক আবু বক্কর সিদ্দিক বকুলের সঞ্চলনায় আরও বক্তব্য রাখেন জেলা যুবদলের সাবেক আহ্বায়ক খালিদ মাহমুদ মিল্টন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক আহ্বায়ক হাজি আব্দুল মান্নান, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক জায়েদ মো. রাজিব খান, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক শামিম হাসান টুটুল, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি শাহজাহান খান, জেলা ওলামাদলের আহ্বায়ক মাও. আনোয়ার হোসেন, চুয়াডাঙ্গা পৌর বিএনপির সহ-সভাপতি ইন্তাজ আলী, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা বিএনপির যুগ্ম-সম্পাদক নূর নবী সামদানী, জেলা তরুন দলের যুগ্ম-আহ্বায়ক সাইদুর রহমান, সদর উপজেলা বিএনপির দফতর সম্পাদক জিল্লুর রহমান জালাল, চুয়াডাঙ্গা পৌর ছাত্রদলের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আমানুল্লাহ বাবুল, জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি সাইফুল ইসলাম, আশিকুল হক শিপুল প্রমুখ।
চুয়াডাঙ্গা পৌর বিএনপি যুগ্ম সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে প্রতীকী অনশন পালন করা হয়েছে। সাহিত্য পরিষদের সামনে সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত দুই ঘণ্টাব্যাপী এ কর্মসূচি পালিত হয়। সভাপতিত্ব করেন চুয়াডাঙ্গা পৌর বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান বাবলু। প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম পিটু। জেলা জাসাস’র সাধারণ সম্পাদক মো. সেলিমুল হাবীব সেলিমের পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন সদর থানা বিএনপির প্রচার সম্পাদক মুন্সি আলাউদ্দীন, পৌর বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, জেলা যুবদল নেতা মনিরুজ্জামান লিপ্টন, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি হাবিবুর রহমান সাদিদ, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আশাদুল হক বটুল, জেলা যুবদল নেতা রাশেদুল ইসলাম রাশেদ, পৌর বিএনপির সহ-সভাপতি আনিসুল হক বিশু, পৌর বিএনপির সহ-সভাপতি আব্দুল হান্নান, ৭নং ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক বজলুর রহমান, মহসিন মেম্বার, সানোয়ার মেম্বার, এরশাদ আলী, আব্দুল ওহাব, সাবেক ছাত্রনেতা হাসান আলী, জেলা তরুণ দলের আহ্বায়ক মাবুদ সরদার, রুবেল হাসান, মো. তুহিন, আবু বক্কর সিদ্দিক হিরো, রনি ইসলাম, সাবেক ছাত্রনেতা শাহাজামাল, জেলা ছাত্রদলের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক আমান উল্লাহ আমান, শাহেদ সিদ্দিকী সোহেল, আরমান, রুবেল, সিজান, আকুল হোসেন প্রমুখ।


আরো দেখুন

অবৈধ দখলদারদের কবলে চুয়াডাঙ্গা জেলা শহর

স্টাফ রিপোর্টার: অবৈধ দখলদারদের কবলে পড়েছে চুয়াডাঙ্গা জেলা শহর। চলাচলের সুবিধার্থে সড়ক সম্প্রসারণ করা হলেও …

Loading Facebook Comments ...