এইচ-টু-ও নিয়ে ট্রল হয়ে ভালোই লাগছে!

বিনোদন ডেস্ক: মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ-২০১৮’ প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালেতে বিচারক খালেদ হোসেন সুজন অনন্যাকে প্রশ্ন করেন, এইচ-টু-ও মানে কী? উত্তরে অনন্যা বলেন, ‘এইচ-টু-ও নামে ধানমণ্ডিতে একটি রেস্টুরেন্ট আছে।’ বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ট্রল ও সমালোচনা করা হচ্ছে এখনো। অন্যদিকে সেই রেস্টুরেন্টের আমন্ত্রণে সেখানে যান এই প্রতিযোগী। অনন্যা বলেন, ‘রেস্টুরেন্ট কর্তৃপক্ষ আমাকে আমন্ত্রণ জানায়। তারা আমাকে যে সম্মান দেখিয়েছে আমি কখনো তা ভুলবো না।’ তবে ট্রল বা সমালোচনা নিয়ে অনন্যা বলেন, ‘সামান্য এইচ-টু-ও নিয়েও এত ট্রল বানানো হবে, বুঝিনি। প্রথমত, প্রশ্নটা আমি বুঝতে পারিনি। আমাকে যদি বলা হতো কিসের সংকেত? তাহলে হয়তো আমি বুঝতে পারতাম। সঠিক উত্তরও দিতাম। আসলে আমি প্রশ্ন শুনে দ্বিধায় পড়ে গিয়েছিলাম। আমি মনে করেছি, বিচারক স্যার হয়তো মজা করে প্রশ্নটি করেছেন। তাই বলে এটা এত ভাইরাল হবে! সবকিছুর তো ইতিবাচক ও নেতিবাচক দিকও থাকে। এ ঘটনারও হচ্ছে।’ তাদের আমন্ত্রণেই রেস্টুরেন্টটিতে গিয়েছিলেন সেরা দশে থাকা এই প্রতিযোগী। রেস্টুরেন্টে গিয়ে তিনি যে ছবিগুলো তুলেছেন সেগুলো দিয়ে এখন নতুনভাবে ট্রল বানানো হচ্ছে!


আরো দেখুন

অভিনেত্রী রেচেলকে বাসায় ডেকে যা করেছিলেন সাজিদ

বিনোদন ডেস্ক: যৌন হয়রানির খবরে বলিউড এখন তোলপাড়। আসছে একের পর এক অভিযোগ। এ বার …

Loading Facebook Comments ...