সহজ জয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজ দক্ষিণ আফ্রিকার

মাথাভাঙ্গা মনিটর: আশা জাগালেও বড় ইনিংস খেলতে পারলেন না ব্রেন্ডন টেইলর, শন উইলিয়ামসরা। অনুজ্জ্বল ব্যাটিংয়ের দিনে জ্বলে উঠতে পারলো না জিম্বাবুয়ের বোলিংও। নিয়মিত খেলোয়াড়দের বেশ কয়েক জনকে বিশ্রাম দেয়া দক্ষিণ আফ্রিকা জিতলো সহজেই। ওয়ানডের পর ঘরে তুলে নিলো টি-টোয়েন্টি সিরিজ। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ৬ উইকেটে জিতেছে ফাফ দু প্লেসির দল। ১৩৩ রানের লক্ষ্য ২৬ বল বাকি থাকতে পেরিয়ে গেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। এই জয়ে তিন ম্যাচের সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল স্বাগতিকরা।

পচেফস্ট্রুমের সেনওয়েস পার্কে গত শুক্রবার টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই সলোমন মিরেকে হারায় জিম্বাবুয়ে। লুঙ্গি এনগিডির এক ওভারে ১৬ রান নিয়ে দারুণ শুরু করেছিলেন হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। তবে দুটি করে ছক্কা-চারে ২১ রান করে ফিরে যান অধিনায়ক। ডানা মেলতে পারেননি টেইলর। তাবরাইজ শামসির বলে বোল্ড হওয়ার আগে এই কিপার ব্যাটসম্যান করেন করেন ৩৫ বলে ২৯ রান। শামসির এক ওভারে ২৪ রান নিয়ে ঝড় তোলার আভাস দিয়েছিলেন উইলিয়ামস। তবে পরের ওভারেই তাকে বোল্ড করে ফেরান ডেন প্যাটারসন। ২৮ বলে তিন ছক্কা আর দুই চারে ৪১ রান করে ফিরেন উইলিয়ামস। আশা জাগিয়েও ব্যাটসম্যানরা বড় ইনিংস খেলতে না পারায় জিম্বাবুয়েও পারেনি বড় স্কোর গড়তে।

দক্ষিণ আফ্রিকার রবি ফ্রাইলিঙ্ক, প্যাটারসন ও এনগিডি নেন দুটি করে উইকেট। আঁটসাঁট বোলিংয়ে ৪ ওভারে মাত্র ১৫ রান দেন আন্দিলে ফেলুকওয়ায়ো। রান তাড়ায় শুরুটা ভালো হয়নি দক্ষিণ আফ্রিকার। দুই অঙ্ক ছুঁয়ে ফিরেন রাসি ফন ডার ডুসেন ও দু প্লেসি। থিতু হয়ে বিদায় নেন কুইন্টন ডি কক। ৫৮ রানে ৩ উইকেট হারানো স্বাগতিকদের পথ দেখান জেপি দুমিনি ও হাইনরিখ ক্লাসেন। চতুর্থ উইকেটে দুই জনে গড়েন ৪৪ রানের জুটি। ডেভিড মিলারকে নিয়ে বাকিটা সহজেই সারেন দুমিনি। ২৬ বলে ৩৩ রানে অপরাজিত থাকেন দুমিনি। ‘কিলার’ মিলার ১৩ বলে চারটি চারে করেন ১৯ রান। জিম্বাবুয়ের উইলিয়ামস ২ উইকেট নেন ২৫ রানে।

আগামী রোববার বেনোনিতে হবে তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি।


আরো দেখুন

বৃষ্টি আইনে হেরে গেল শ্রীলঙ্কা

মাথাভাঙ্গা মনিটর: শেষ পর্যন্ত বৃষ্টি আইনে নির্ধারণ হলো শ্রীলঙ্কা-ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় ম্যাচ। পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের …

Loading Facebook Comments ...