মেহেরপুরে গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ

মেহেরপুর অফিস: মেহেরপুর সদর উপজেলার পিরোজপুর গ্রামের জালা খাতুন নামের এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল শনিবার সকালে মেহেরপুর সদর থানা পুলিশের একটি দল লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মেহেরপুর মর্গে পাঠায়। এ ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী গোলাম মোস্তফাসহ পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছে।
স্থানীয়রা জানান, ৭ থেকে ৮ বছর আগে মেহেরপুর সদর উপজেলা সিংহাটি গ্রামের ফকির মোহাম্মদের মেয়ের সাথে পিরোজপুর গ্রামের মনি বিশ্বাসের ছেলে গোলাম মোস্তফার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে তাদের সংসারে নানা কারণে অশান্তিতে ভরে থাকতো। পরে গোলাম মোস্তফা ২য় বিয়ে করলে তাদের মধ্যে অশান্তি আরও বেড়ে যায়। এক পর্যায়ে ঘটনার রাতে তাদের মধ্যে তুমুল ঝগড়া হয়। সকালে ঘরের মধ্যে গৃহবধূর গলায় ফাঁস দেয়া ঝুলন্ত লাশ দেখে প্রতিবেশীরা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে।
নিহত জালা খাতুনের চাচাতো ভাই সাবিরুল ইসলাম অভিযোগ করেন, তার বোনের ওপর গোলাম মোস্তফা নির্যাতন করতো। নির্যাতনের এক পর্যায়ে গত শুক্রবার রাতের কোন এক সময় তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা শেষে লাশ ঘরে ঝুলিয়ে রেখে আত্মহত্যার গুজব ছড়িয়েছে এবং পরিবারের সকলে পালিয়ে গেছে। আমারা এ হত্যাকা-ের বিচার চাই।
মেহেরপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রবিউল ইসলাম জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত করা হয়েছে। নিহতের স্বামী ও পরিবারের লোকজন পলাতক থাকায় সন্দেহ করা হচ্ছে এটি হত্যাকা-। তবে ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পরই তা নিশ্চিত হওয়া যাবে। এ ব্যাপারে হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে। মামলা হলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরো দেখুন

চুয়াডাঙ্গায় সুধীজনদের সাথে মতবিনিময়সভায় নবাগত জেলা প্রশাসক গোপাল চন্দ্র দাস

  রাষ্ট্রের সেবক হিসেবে ভালো কাজের দ্বারা জনগণের মনে থাকতে চাই স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা জেলা …

Loading Facebook Comments ...