টিপ্পনী

ভ্যান্ত-

মাস্টার মহাশয় কাজে কামে দক্ষ
স্বার্থের পানে তার বরাবরই লক্ষ্য
মাঝে মাঝে ক্ষেপে গিয়ে হয়ে ওঠে বন্য
ছাত্রীরা তার কাছে লিখে-পড়ে ধন্য।

অপরের কাজ নিয়ে করে খালি ঠাট্টা
মারে শুধু ছাত্রীর মাথা সোজা গাট্টা
খাতা ছিঁড়ে হইচই দিতে পারে দ-
শুভ কাজে বাধা দিয়ে করে দেয় প-।

তার সাথে হয়ে থাকে সব্বারই দ্বন্দ্ব
মোট কথা লোকটা যে খুবই বদ-মন্দ
ওর কাছে শোনা যায় নাকো সুরে কান্না
কলেজের কেউ তাকে একেবারে চান না।

কোলে বসে ফোলে বেশি হাঁকে জোরে ছক্কা
অনেকেই কাছে এসে করে তারে রক্ষা
মামা খালু পেয়ে পেয়ে সেয়ানা সে জ্যান্ত
এত তার বাড়াবাড়ি বুঝি নাতো ভ্যান্ত।
সূত্র: (জীবননগর মহিলা কলেজে হাজিরা খাতা নিয়ে প্রভাষকের লঙ্কাকা-)


আরো দেখুন

টিপ্পনী

যাবজ্জীবন- কিলিং মিশন ভয়াল ভীষণ তোমরা সে খেল দেখালে, ভেবেছিলে কেউ বুঝি আর টের পাবে …

Loading Facebook Comments ...