সাহিত্য পাতা

টিপ্পনী

ভ্যান্ত- মাস্টার মহাশয় কাজে কামে দক্ষ স্বার্থের পানে তার বরাবরই লক্ষ্য মাঝে মাঝে ক্ষেপে গিয়ে হয়ে ওঠে বন্য ছাত্রীরা তার কাছে লিখে-পড়ে ধন্য। অপরের কাজ নিয়ে করে খালি ঠাট্টা মারে শুধু ছাত্রীর মাথা সোজা গাট্টা খাতা ছিঁড়ে হইচই দিতে পারে দ- শুভ কাজে বাধা দিয়ে করে দেয় প-। তার সাথে …

আরো পড়ুন »

টিপ্পনী

ঠিক করে রাখ- ওদের খাওয়ার বহর বেশি পিরিত খাতির পাতিয়ে, লোভ দেখিয়ে নানান রকম মালপানি নেয় হাতিয়ে। হাত বুলিয়ে মাথায় খানিক স্বার্থ তাবত বাগিয়ে, পাওনাদারও কৌশলে খুব তিলেকে দেয় ভাগিয়ে। আঙুল ফুলে হয় কলাগাছ ঠিক বেশুমার কামিয়ে, কার বা মুরোদ শাস্তি দেবে ওপর থেকে নামিয়ে। ওরা তো বেশ প্রভাবশালী লাভ …

আরো পড়ুন »

টিপ্পনী

মগজ মাথা ঘামাও-   কোন মুলুকে আমরা এখন করছি সবাই বাস, সকাল বিকেল ভাসে চোখে কতজনের লাশ।। একটা শিশু খেলতে গিয়ে ঠেলার গাড়ি ঠেলতে গিয়ে খাচ্ছে ছুরি পেটে; অকারণে কত্ত মানুষ যায় পড়ে টার্গেটে। ভাবতে গেলেই অনিদ্রা হয় পালায় চোখের ঘুম, স্বপ্ন ছোঁয়া সজন কুটুম কখন কে হয় গুম। খুন …

আরো পড়ুন »

টিপ্পনী

ডজ খাওয়া- বাড়ছে দালান বাড়ছে গাড়ি নেই তো সেবার বালাই, রোগীরা খুব কান্না করেন অসুখ বিসুখ জ্বালায়। উন্নতি হয় ডাক্তার-নার্স কর্মচারীর বেশ বাড়ছে তাদের পয়সা কড়ি আমজনতা শেষ। হয় না সেবা রোগীর মোটে ওষুধ পথ্য কিই বা জোটে জানে সবাই জানে, বলতে গেলেই কর্তারা ওই তুলো ঢোকায় কানে। ওদের শুধু …

আরো পড়ুন »

টিপ্পনী

পালিয়ে যাবেন কোথা-   গুল মেরে নেয় পয়সা কড়ি কৌশলে হয় আদায়, জনজনতার বেঘোর দশা পড়েন তারা ধাঁধাঁয়। স্বচ্ছতা নেই কোনোখানেই মিথ্যা বলে বাগায়, একশ’ টাকার স্থলে তাই দুইশ’ টাকা লাগায়। যাচ্ছে টাকা কোথায় কতো লাগছে কিসের দরুন, দু’ চোখ বেঁধে নেয়ার মতোই লুটতরাজই ধরুন। এই ধোঁয়াশার আড়াল পানেই সিন্ডিকেটের …

আরো পড়ুন »

টিপ্পনী

আত্মহত্যা- কার ওপরে রাগ করেছেন কার ওপরে মান কী কারণে বেছে নিলেন মৃত্যু-গোরস্তান। বাঁচতে হবে লড়াই করে চলতে হবে বড়াই করে খুঁজতে হবে হাসি-খুশি কর্মসংস্থান। এই দুনিয়ায় কেউ কোনোদিন সারাজীবন বাঁচে না, মৃত্যু আছে নাকের ডগায় কিন্তু আবার কাছে না। মরবো বলেই মরবে না কেউ ভূবন ছেড়ে সরবে না কেউ …

আরো পড়ুন »

টিপ্পনী

ধনী হওয়া- আহাদ আলী মোল্লা ফার্ম ম্যানেজার কুমড়ো চাষের কায়দা কানুন বোঝেন বেশি, কোন ফাঁকে যায় কী করা তা ঝুঁকে পড়ে খোঁজেন বেশি। কোথাও যদি সুই ঢোকে তো ফাল ঢুকিয়ে ছাড়েন তিনি, খাওয়ার সুযোগ পাওয়া মানেই আচ্ছা খাবল ঝাড়েন তিনি। মালপানি সে ময়লাতে থাক ছো দিয়ে তা ধরেন আহা ফঁসকে …

আরো পড়ুন »

টিপ্পনী

যাবজ্জীবন- কিলিং মিশন ভয়াল ভীষণ তোমরা সে খেল দেখালে, ভেবেছিলে কেউ বুঝি আর টের পাবে না এ কালে। চার খুনির এই অভিযানে মানুষ মরে লাশ হয়ে যায়, ক’দিন পরেই খুনের যতো রহস্যভেদ ফাঁস হয়ে যায়। থানা পুলিশ করলে শেষে আদালতের রায় হয়ে যায়, যা আসলে হওয়ার কথা মনে মনে তাই …

আরো পড়ুন »

টিপ্পনী

দাদা এবার ফাঁইসাছে- পরের মধু নাক জুবিয়ে জীবনে যে খাইয়াছে সেই তো কেবল মজাটুকু পুরোপুরি পাইয়াছে। মধুর মজায় পাগল পাগল লোকের ঘরে ঢুইকাছে, হাত বাড়িয়ে বলে সে আয় প্রিয়তমা তুই কাছে। সেদিন হলো বেকায়দাভাব কেবল ঘাড়ে চইড়াছে, অমনি এসে ফাঁদের মতোন গ্যাঁড়াকলে পইড়াছে। অনেকদিনের আবাদ শেষে দাদা এবার ফাঁইসাছে, সমাজে …

আরো পড়ুন »

টিপ্পনী

আশায় আছি- নৃশংসতা খুব দেখেছি দেখছি সারা জীবন, সঙ্গী আমার সড়ক নদী মরুভূমি কী বন। গা কাঁপে না এখন কারোর খুন খারাবি হত্যায়, রঞ্জিত হয় রক্ত খেলায় সামনে চলার পথ তাই। লাশ পড়া খুব তুচ্ছ ব্যাপার ভয় করে না তেমন, কিন্তু কেন থরথরিয়ে কাঁপে আমার এ মন? আজকে জবাব দিতেই …

আরো পড়ুন »