আলমডাঙ্গায় পশু পালনকারী খামারীদের মধ্যে গো-খাদ্যসহ উপকরণ বিতরণ

 মাংস প্রক্রিয়াজাতকারীদের দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: আলমডাঙ্গা প্রাণিসম্পদ অফিসের উদ্যোগে খামারীদের মধ্যে বিনামূল্যে ১০ জন গরু মোটাতাজা করণ খামারীকে গোখাদ্যসহ উপকরণ বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় এগ্রিকালচারাল টেকনোলজি প্রোগ্রাম ফেজ-২ প্রজেক্ট (এনএটিপি-২)’র গরু হৃষ্ট পুষ্টকরণ প্রদর্শনী (প্যাকেজ প্রযুক্তির) প্রাণিসম্পদ অংঙ্গের আওতায় এ উপকরণ বিতরণ করা হয়। উপজেলার ১০ খামারিদের মাঝে গরু মোটাতাজাকরণ গোখাদ্য বিতরণ করা হয়। প্রতিটি সহায়তা প্যাকেজে ছিলো ১২৫ কেজি মোটাতাজা করণ ফিড, ৯০ কেজি চিটাগুড়, হাইফিড ৩ কেজি, কৃমির ওষুধ ১৪টি, সাইনবোর্ড ও ৩০০ টাকা করে ব্রিফিং ভাতা। উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. আব্দুল্লাহিল কাফির সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. গোলাম মোস্তফা।

এ সময় তিনি বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতি ও লাঙ্গলের ফলার অর্থনীতি। এই খাতে উন্নয়ন হলে দেশবাসীর ভাগ্যের উন্নয়ন হবে। দেশ উন্নত হবে। তাই এই অধিদফতরের উন্নয়নের জন্য উদ্যোক্তা সৃষ্টি হবে। শিক্ষিত তরুন ও মহিলাদের উদ্যোক্তা করতে উৎসাহ দিতে হবে।

প্রাণিসম্পদ সম্প্রসারণ কর্মকর্তা ডা. শরিয়তুল্লাহর উপস্থাপনায় উপস্থিত ছিলেন প্রাণিসম্পদ সম্প্রসারণ কর্মকর্তা ডা. বেলাল, উপ-সহকারী প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা শামসুজ্জোহা, মাসুদ আলী খান, নাসির উদ্দিন, কাসেম আলী, যুবলীগ নেতা মিজানুর রহমান মিজান, ডা. আতিক বিশ^াস, খামারী আব্দুর জব্বার মিন্টু, রাশিদুল ইসলাম, আশাদুল হক, মোশারেফ হোসেন, মিলন হোসেন, শিপন আলী, ইউসুফ আলী, ফিল্ড অফিসার সোহাগ আলী, সোহাগ প্রমুখ। পরে ২৫ জন মাংস প্রক্রিয়াজাতকারীদের দক্ষতা উন্নয়ন বিষয়ক প্রশিক্ষক দেয়া হয়।

 

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More