চলে গেলেন মহেশপুরের শিক্ষার বাতি আনু স্যার

মহেশপুর প্রতিনিধি: বৃহত্তর যশোর জেলার এক সময়ের গুণী ইংরেজী শিক্ষক শিক্ষার বাতি হিসেবে পরিচিত আনোয়ার হোসেন আনু স্যার আর আমাদের মাঝে নেই।  গত শনিববার দিবাগত রাত পৌনে ১১টায় বার্ধক্যজনিত কারণে নিজ বাসভবনে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্নালিল্লাহি…..রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৮৮ বছর। তিনি ৪ ছেলে ও ৩ মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। রোববার সকাল ১১টায় রামচন্দ্রপুর কবরস্থান মাঠে জানাজা নামাজ  শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে সমাহিত করা হয়। এই গুণী শিক্ষক আনোয়ার হোসেনের মৃত্যুতে গোটা মহেশপুরে  শোকের ছায়া নেমে আসে। তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ অ্যাড. শফিকুল আজম খাঁন চঞ্চল, মহেশপুর অফিসার্স ফোরামের সভাপতি আব্দুল আজিজ, সাধারণ সম্পাদক আবুল বাশার, জিয়া কলেজের অধ্যক্ষ শওকত আলী, মহেশপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জহুরুল ইসলাম, সাবেক প্রধান শিক্ষক এটিএম খাইরুল আনাম, সাবেক পৌর মেয়র আমিরুল ইসলাম খাঁন চুন্নু, উপজেলা আ.লীগের সভাপতি সাজ্জাদুল ইসলাম সাজ্জাদ, মহেশপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি আব্দুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সেলিম (মরহুম আনোয়ার হোসেন মহেশপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সেলিমের আপন চাচা)।

উল্লেখ্য, এই গুণী শিক্ষক ১৯৩২ সালে উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামে জন্মগ্রহন করেন। তার পিতার নাম মৃত মান্দার বক্স বিশ্বাস। তিনি যশোর জেলার স্বনামধন্য একজন ইংরেজী শিক্ষক ছিলেন। পাকিস্থান আমলে বৃহত্তর যশোর জেলার যতজন ইংরেজী শিক্ষক ছিলেন তার মধ্যে তিনি অন্যতম। তিনি ১৯৬২ সালে মহেশপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। ১৯৯৮ সালে তিনি অবসর গ্রহণ করেন। দীর্ঘ ৩৬ বছর শিক্ষকতা জীবনে অসংখ্য শিক্ষার্থী তার কাছ থেকে দীক্ষা গ্রহণ করে ব্যক্তি জীবনে সফলতা অর্জন করে তারা আজ দেশ-বিদেশে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করছে। ২০১৭ সালে মহেশপুর অফিসার্স ফোরাম তাকে গুণীজন সম্মাননা প্রদান করে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More