মহেশপুরে নির্যাতনে ক্ষতবিক্ষত দুই হনুমানের মৃত্যু

খাদ্যের জন্য লিচু বাগানে ছুটাছুটি : বাগান মালিকের নির্মমতা
মহেশপুর প্রতিনিধি: মহেশপুরে লিচু খেতে গিয়ে বাগান মালিকের পাতা ফাঁদে নির্মমতার শিকার হলো বিরল প্রজাতির দুটি কালোমুখী হনুমান। লিচু বাগানের কারেন্ট জাল ও ফাঁদে আটকে যাওয়ার পর হনুমান দুটিকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে ক্ষতবিক্ষত করা হয়। এরপর আটকে থাকা অবস্থায় কুকুরে হামলা চালায় হনুমান দুটির উপর। পরে মরনাপন্ন অবস্থায় হনুমান দুটিকে উদ্ধার করে স্থানীয়রা। এরপরই বিলুপ্তপ্রায় প্রজাতির কালোমুখী হনুমান দুটির মৃত্যু হয়। গতকাল সোমবার দুপুরে মহেশপুর উপজেলার ভবনগর গ্রামে নির্মম এ ঘটনাটি ঘটে।
এলাকাবাসীরা জানায়, মহেশপুরের ভবনগর গ্রামের খালেক তরফদার তার বাড়ি সংলগ্ন লিচু বাগানের লিচু ঠেকাতে কারেন্ট জালসহ চতুর পাশে ফাঁদ পেতে রেখেছে। আর লিচু খেতে গিয়ে সেই ফাঁদে আটকা পড়ে দুটি কালোমুখী বিরল প্রজাতির হনুমান। এরপর বাগান মালিক ও বাড়ির লোকেরা হনুমান দুটিকে পিটিয়ে কুপিয়ে ক্ষত-বিক্ষত করে। তবে ফাঁদে আটকা পড়া হনুমান দুটিকে কুকুর হামলা করে বলে বাগান মালিকের দাবি।
এ বিষয়ে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. ফজলুল কবিরের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এটি বন বিভাগের দায়িত্ব। আমাদের কোনো দায়িত্ব নেই। বিষয়টি মহেশপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানানো হলে তিনি বলেন, আমি বন বিভাগের সাথে যোগাযোগ করে দেখছি।
প্রসঙ্গত, ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার ভবনগর গ্রামে শতাধিক কালোমুখী হনুমান বসবাস করে। সারাবছর জুড়ে হনুমানগুলো বাগানে বাগানে থাকে এবং বাচ্চা প্রজন্ম করে। তবে স্থানীয়দের নির্যাতনে ক্রমেই কমে আসছে এই বিরল প্রজাতির হনুমানের সংখ্যা। এলাকার সচেতন মহলের দাবি এসব হনুমানগুলো সরকারিভাবে সংরক্ষণ করা এবং হনুমান যারা নিধন করছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More