দেশ বিদেশের গুচ্ছ সংবাদ

‘মোনালিসা’কে বিক্রি করে দেবে ফ্রান্স!
মাথাভাঙ্গা মনিটর: করোনায় বিধ্বস্ত হয়ে অর্থনৈতিক মন্দায় পড়েছে ইউরোপের দেশ ফ্রান্স। আর সেই পরিস্থিতি সামাল দিতে লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চির অমর কীর্তি ‘মোনালিসা’ চিত্রকর্মটি বিক্রি করার প্রস্তাব দিয়েছে দেশটির এক প্রতিষ্ঠান। সেই প্রস্তাবে সাড়াও দিয়ে মোনালিসা বিক্রির পথে হাঁটতে পারে ফ্রান্স সরকার। এদিকে এমন প্রস্তাবের খবরে চটেছে চিত্রকর্মবিষয়ক এক আন্তর্জাতিক সংগঠন। ‘মোনালিসা’ বিক্রি করলে বা নিলামে তুললে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে মামলার হুমকি দিয়েছে সংগঠনটি। ফরাসি সংবাদমাধ্যম ফ্রান্স ২৪-এর এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানা গেছে। মোনালিসাকে ৫০ বিলিয়ন ইউরোতে বিক্রি করে দেয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন ফ্রান্সের স্বনামধন্য প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ফেবারনোভালের প্রতিষ্ঠাতা স্টেফানে ডিস্টিঙ্গুইন। প্রতিষ্ঠানটির ভাষ্য মোনালিসা বিক্রি করে যে বড় রকমের অর্থ মিলবে তা ফ্রান্সের এই করোনাকালে মন্দা উত্তরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। তবে ডিস্টিঙ্গুইনের এমন যুক্তির চরম বিরোধী ওয়ার্ল্ড পেইন্টিং ফোরাম।
নামিবিয়ার প্রেসিডেন্ট মন্ত্রী ও এমপিদের ৫ বছর গাড়ি ব্যবহার নিষিদ্ধ
মাথাভাঙ্গা মনিটর: করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট আর্থিক সংকট মোকাবেলা করতে নামিবিয়ার সরকারের প্রেসিডেন্ট, মন্ত্রী, এমপি, সব আমলা ও সরকারি কর্মকর্তাদের নতুন গাড়ি ক্রয় ও পুরাতন গাড়ি ব্যবহারের ওপর ৫ বছরের জন্য নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। দেশটির রাষ্ট্রপতি আগামী পাঁচ বছরের জন্য এ নিষেধাজ্ঞার কথা ঘোষণা করেছেন, যাতে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য তহবিল সংগ্রহ করা যায়। প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র আলফ্রেডো হেনগরী এক বিবৃতিতে ঘোষণা করেছেন, রাষ্ট্রপতি হেজে জিংবব নির্দেশ দিয়েছেন যে, ২০২০-২০২৫ সাল সময়ের মধ্যে নামিবিয়ার সরকারের প্রেসিডেন্ট থেকে শুরু করে কোনো মন্ত্রী, এমপি ও সরকারি কর্মকর্তা যানবাহন ব্যবহার ও নতুন যানবাহন ক্রয় করতে পারবে না। এই ৫ বছরের যানবাহনের খরচ সাশ্রয় করে করোনা আক্রান্ত রোগীদের তহবিল গঠন করা হবে।
ভেন্টিলেটর কেনায় অনিয়মে গ্রেফতার বলিভিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী
মাথাভাঙ্গা মনিটর: ভেন্টিলেটর কেনায় অনিয়মের কারণে গ্রেফতার হয়েছেন লাতিন আমেরিকার দেশ বলিভিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী মার্সেলো নাভাহাসভ। স্বাস্থ্যমন্ত্রী মার্সেলো নাভাহাসের বিরুদ্ধে করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে ১৭০টি ভেন্টিলেটর কেনায় অনিয়মের অভিযোগ ছিলো। বলিভিয়ান অর্ন্তবর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট জিনাইন আনেজ টুইটারে লিখেছেন, একটি স্প্যানিশ কোম্পানির কাছ থেকে ১৭০টি ভেন্টিলেটর কিনতে ইন্টার আমেরিকান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক থেকে পাওয়া তহবিলের ২০ লাখ ডলার খরচ করা হয়েছে। অনিয়মের অভিযোগে নাভাহাস ও আরো কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। কিন্তু রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এখনো কোনো অভিযোগপত্র দেয়নি বলে জানান রোহাস। গ্রেফতার হওয়ার পরপরই স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে নাভাহাসকে। ভেন্টিলেটর কেনায় দুর্নীতির পূর্ণ তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আনেজ। স্বাস্থ্যমন্ত্রীর গ্রেফতারের কয়েক ঘণ্টা পর তার টুইট, ‘আমরা তদন্ত চালিয়ে যাব, অপরাধী কে তা নিয়ে ভাবব না।’ ইন্টার আমেরিকান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক বিষয়টি জানার সঙ্গে সঙ্গে সম্ভাব্য অনিয়ম নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে।
সীমান্ত নিয়ে তীব্র বিরোধে নেপাল-ভারত
মাথাভাঙ্গা মনিটর: সীমান্ত নিয়ে বিরোধ তীব্র হচ্ছে ভারত ও নেপালের মধ্যে। মঙ্গলবার নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি ওলি সংসদে বলেন, পিথোগড় জেলার কালাপানি এলাকা ভারত দখল করে রেখেছে। কিন্তু এটি নেপালের অংশ। একই দিন দেশটির একটি নতুন রাজনৈতিক মানচিত্রও প্রকাশ করা হয়। কেপি ওলি বলেন, রাজনৈতিক ও কূটনৈতিক উদ্যোগের মাধ্যমে আমরা কালাপানির ওপর আমাদের অধিকার বিস্তার করব। মঙ্গলবার প্রকাশিত নতুন মানচিত্রে কালাপানি, লিমপিয়াধুরা এবং লিপুলেখকে নেপালের অন্তর্গত বলে দেখানো হয়েছে। গত বছর নিজেদের রাজনৈতিক মানচিত্র প্রকাশ করেছিলো ভারত। নেপাল তখন কোনো কথা বলেনি। এরপর নেপালের সঙ্গে সীমান্ত পরিমার্জন হয়নি বলে জানিয়েছে তারা। নেপাল বলেছে, কালাপানি নিয়ে ভারতের সঙ্গে বহু দশক ধরে টানাপোড়েন চলছে তাদের। গতবছর ভারত নিজেদের একটি রাজনৈতিক মানচিত্র প্রকাশ করে। সেখানে কালাপানিকে ভারতের অংশ হিসেবে দেখানো হয়। সে মানচিত্রের বিরোধিতা করে নেপাল বলেছে, ১৯৬২ সালের আগে পর্যন্ত কালাপানির দখল নেপালের হাতে ছিল। নেপালের নতুন প্রকাশিত রাজনৈতিক মানচিত্রে কালাপানি, লিম্পিয়াধুরা ও লিপুলেখকে নিজেদের অংশ দাবি করায় ভারতের কাছ থেকে তীব্র প্রতিক্রিয়া পাওয়া গেছে।

চোরাই পথে পদ্মা পাড়ি ঠেকাতে ১৯ ট্রলার ডুবিয়ে দিলো পুলিশ
স্টাফ রিপোর্টার: শিমুলিয়া ঘাট দিয়ে সোমবার বিকেল ৩টা থেকে সকল প্রকার চলাচল বন্ধ থাকলেও কিছু অসাধু ট্রলার ও সিবোর্ট চালকরা নদী পারাপার করে আসছিলেন। পুলিশের নজর এড়াতে তারা সরাসরি শিমুলিয়া ঘাটের বদলে মাওয়া পুরাতন ফেরি ঘাট থেকে যাত্রী পারাপারের চেষ্টা করছিলেন। খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার পুলিশ সেখানে অভিযান চালিয়ে ৪৮টি ট্রলার ও দুই সিবোট আটক করেছে। এর মধ্যে পদ্মায় ডুবিয়ে দিয়েছে ১৯টি। মাওয়া নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক সিরাজুল কবির জানান, গত মঙ্গলবার থেকে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে ফেরিসহ সকল প্রকার নৌযান দিয়ে যাত্রী পারপার সম্পূর্ণ বন্ধ করেছে প্রশাসন। পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে কড়া নজরদারী করছে নৌপুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। বৃহস্পতিবারও ভেঙে ভেঙে কিছু যাত্রী আসছে মাওয়ার দিকে। তবে তারা শিমুলিয়া ঘাটে না গিয়ে মাওয়া চৌরাস্তা থেকে পশ্চিমে পুরাতন ফেরি ঘাটে চলে যাচ্ছে। এখানে একটি চক্র ট্রলার ও সিবোট দিয়ে ওপারে চর জানাজাত ঘাটে এসব যাত্রীদের পারাপার করে যাচ্ছিলো। খবর পেয়ে সকাল থেকে অভিযান চালিয়ে ৫টি ট্রলার জব্দ করা হয়েছে। যাত্রী নামিয়ে এর মধ্যে দুটি ট্রলার পদ্মায় ডুবিয়ে দেয়া হয়েছে। এর আগে বুধবার পর্যন্ত ১৭টি ট্রলার পদ্মায় ডুবিয়ে দেয়া হয়েছে। সর্বমোট ৪৮টি ট্রলার জব্দ করা হয়েছে, এর মোট ১৯টি ট্রলার আজ পর্যন্ত ডুবিয়ে দেয়া হয়েছে।
জরুরি চলাচলে চালু হচ্ছে ‘মুভমেন্ট’ পাস
স্টাফ রিপোর্টার: করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে জনসাধারণের চলাচল নিয়ন্ত্রণ করতে ‘মুভমেন্ট পাস’ চালুর উদ্যোগ নিচ্ছে পুলিশ। এ পাস নিয়ে জরুরি প্রয়োজনে বের হওয়া মানুষ বাধামুক্তভাবে চলাচল করতে পারবেন। সেবা পেতে সংশ্লিষ্টদের অনলাইনে আবেদন করতে হবে। পুলিশ সদর দফতরের এআইজি (মিডিয়া) সোহেল রানা বলেন, জরুরি প্রয়োজনে যারা ঘর থেকে বের হচ্ছেন, তাদের বাধামুক্ত চলাচলে এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। বিষয়টি পুলিশের বিভিন্ন ইউনিট প্রধানের কাছে পাঠানো হয়েছে। তবে বিষয়টি এখন প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। শিগগিরই এই সেবা চালু করা হবে। পুলিশ সদর দফতরসূত্র জানায়, করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতেও জরুরি প্রয়োজনে মানুষকে অবশ্যই ঘরের বাইরে যেতে হয়। পরিস্থিতি বিবেচনায় বাংলাদেশ পুলিশকে অনলাইনে আবেদনের মাধ্যমে যথোপযুক্ত কারণ দেখিয়ে বাইরে যাওয়ার অনুমতি মিলবে। যদিও এখনো এই সেবা চালু হয়নি। তবে গত বুধবার মুভমেন্ট পাস নামে সেই আবেদন ফরম উন্মুক্ত করেছে পুলিশ সদর দফতর।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More