আলমডাঙ্গায় ক্রোকারিজ ব্যবসায়ী হারুন-অর-রশিদ আর নেই

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: জেলা পরিষদের সদস্য আবু মুসার মেজো ভাই ক্রোকারিজ ব্যবসায়ী হারুন-অর- রশিদ আর নেই। তিনি ২৩ নভেম্বর দিন গত রাত ২টার দিকে নিজ বাড়িতে স্টোক জনিত কারণে মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে মরহুমের বয়স হয়েছিলো ৫৬ বছর। বাদ জোহর মরহুমের জানাজায় চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুনসহ নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
জানা যায়, আলমডাঙ্গা পৌর আ.লীগের সাবেক সভাপতি ও জেলা পরিষদের সদস্য আবু মুসার মেজো ভাই হারুন অর রশিদ একজন ক্রোকারিজ ব্যবসায়ী। তিনি আলমডাঙ্গা শহরে নিজ বাড়ির নিচতলায় ‘সাদ ক্রোকারিজ’ নামক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান দিয়ে ব্যবসা করতেন। তিনি শহরে এবং গ্রামের বাড়ি এরশাদপুর দুই জায়গাতেই থাকতেন। ২৩ নভেম্বর দিনগত রাতে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাকে দ্রুত চিকিৎসার জন্য শেফা ক্লিনিকে নিয়ে গেলে ডা. মৃত ঘোষণা করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ২ ছেলে ও ১ মেয়ে, ভাই-ভাতিজাসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। ২৪ নভেম্বর বুধবার বাদ যোহর জানাজার নামাজ শেষে এরশাদপুর কবরস্থানে দাফন করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন, আলমডাঙ্গা উপজেলা চেয়ারম্যান আইয়ুব হোসেন, উপজেলা আ.লীগের সভাপতি পৌর মেয়র হাসান কাদির গনু, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাড. সালমুন আহমেদ ডন, জেলা আ.লীগের সদস্য সিরাজুল ইসলাম, উপজেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও শিক্ষানুরাগী লিয়াকত আলী লিপু মোল্লা, সাংগঠনিক সম্পাদক আতিয়ার রহমান, আলম হোসেন, প্রচার সম্পাদক মাসুদ রানা তুহিন, পৌর আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক মতিয়ার রহমান ফারুক, সহ-সভাপতি আমিনুল ইসলাম অপু মোল্লা, যুগ্ম সম্পাদক সাইফুর রহমান পিন্টু, কাউন্সিলর খন্দকার মজিবুল ইসলামসহ উপজেলা ও পৌর আ.লীগের নেতৃবৃন্দ। মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনায় সকলের নিকট দোয়া চেয়েছেন বড়ভাই আবু মুসা।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More