চুয়াডাঙ্গায় ব্যতিক্রমী ইফতারির আয়োজন করলেন বিক্রয় বন্ধু রাজিব আহমেদ

 

স্টাফ রিপোর্টার: এক ব্যতিক্রমী ইফতার অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন চুয়াডাঙ্গার কৃতিসন্তান রাজিব আহমেদ। ‘সবার আগে সুস্থতা: আসুন, সুস্থ থাকি’ শীর্ষক সামাজিক আন্দোলনের উদ্যোক্তা ও সুস্বাস্থ্য গবেষক ‘বিক্রয়বন্ধু’ খ্যাত রাজিব আহমেদ গতকাল সোমবার তার চুয়াডাঙ্গার কোর্টপাড়াস্থ বাসভবনে আলগা তেল ও সাদা চিনিমুক্ত, আগুনের স্পর্শবিহীন প্রাকৃতিক জীবন্ত খাবারের ইফতারির আয়োজন করেন। সেখানে উপস্থিত বিশিষ্ট সুধীজনেরা এমন ব্যতিক্রমী আয়োজনের ভূয়সী প্রশংসা করেন। আপ্যায়িত অতিথিগণের মতে- এমন জীবন্ত খাবার নিয়মিত খেলে আজীবন সুস্থতা সুনিশ্চিত হবে!

ইফতার অনুষ্ঠানে উপস্থিত সুধীরা জানান, ইফতারির খাদ্যতালিকায় ছিল অঙ্কুরিত মুগ, মুসুর, মাসকলাই, মেথি, কাঁচা ছোলা, লাল ও শাদা কিডনি বিন, আখরোট, কাঠ বাদাম, কাজু বাদাম, পেস্তা বাদাম, চীনা বাদাম, কিসমিস, শশা, গাজর, কাঁচা পেঁপে, টমেটো, কাঁচাঝাল, পেঁয়াজ, বিটলবণ, ভিনেগার, আদা, রসুন, গরম মসল্লা, পিঙ্ক সল্ট, ধনেপাতা, কালোজিরা, তিল, তিষি, লেবুর খোসা, আনার, মাল্টা, বাঙ্গী, পেয়ারা, তরমুজ, আনারস, খেজুর, আঙুর, পাকাকলা, সবুজ আপেল ও কুমড়োর বীজ। প্রাকৃতিক শরবতে ছিল কুতিলা, তোকমা, ইসুবগুলের ভুসি, লেবুর রস ও আখের গুড়। সবুজ পানীয়তে ছিলো থানকুনি পাতা, ডালিম পাতা, পেয়ারা পাতা, পুদিনা পাতা, তুলসী পাতা, সাজনা পাতা, নিমপাতা, ধইঞ্চা শাক, তেলাকুচি পাতাসহ পাঁচ রকমের ভেষজ (ঔষধি গুণাগুণসম্পন্ন) পাতা ও মধুর মিশ্রণ। সবশেষে রাতের খাবারে ছিল তেলছাড়া রান্না করা গরুর মাংস, সিদ্ধ ডিম এবং মাশরুমসহ পাঁচমিশালী ডালের ঢেকিছাঁটা লাল চাল আর বেগুনি জনকরাজ চালের মুখরোচক পুষ্টিকর খিচুড়ি।

আয়োজক রাজিব আহমেদ বলেন, ‘আমাদের চারপাশের প্রত্যেকটা মানুষ কম-বেশি অসুস্থ। সমস্যা বেড়ে গেলে আমরা চিকিৎসার আশায় এখানে-ওখানে দৌড়াদৌড়ি করি, গাদাগাদা ওষুধ (আসলে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াযুক্ত সিনথেটিক ড্রাগস) খাই, কিন্তু শেষরক্ষা হয় না! অথচ সুস্থতার সমাধান কোনো হাসপাতাল, চিকিৎসক বা ওষুধে নিহিত নেই, আছে কেবল প্রাকৃতিক জীবন্ত খাবারে। কিন্তু সেদিকে কারোরই সুদৃষ্টি নেই বললেই চলে। আমরা সবচেয়ে বেশি কম্প্রোমাইজ করি খাবারের বেলায়। যা কিছু মুখে মজা লাগে, কোনো প্রকার বাছ-বিচার ছাড়াই পেটে চালান করে দেই! ফলে অসুখ-বিসুখ আমাদেরকে ছাড়ে না।’ তিনি আরো বলেন, ‘চারটি ক্রমাগত ভুলের কারণে মানবসভ্যতা এখন ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে। ১. আমাদের খাদ্য নির্বাচন ঠিক হচ্ছে না। ২. খাদ্যের পরিমাণ ঠিক নেই। ৩. খাদ্য গ্রহণের সময় যথাযথ নয়, ৪.খাদ্য গ্রহণের ভঙ্গিমাও ঠিক নয়। এই চার ভুল অব্যাহত রেখে স্রেফ টাকা কিংবা ক্ষমতার জোরে পরিপূর্ণ সুস্থতার আশা করাটা বোকামি!

জীবন্ত খাবারের পরিচিতি ও জনসচেতনতা তৈরির অভিপ্রায়ে আয়োজিত ইফতার মাহফিলে অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক মাথাভাঙ্গার সম্পাদক সরদার আল আমিন, অধ্যক্ষ শেখ মো. ইস্রাফিল, অধ্যক্ষ হামিদুল হক মুন্সী, অধ্যাপক আবদুল মোহিত, ডা. মাহবুবুর রহমান মিলন, ডা. তারিক হাসান শাহীন, শিক্ষক মিল্টন খান, সংস্কৃতিসেবী ইকবাল আতাহার তাজ, প্রগতি লেখক সংঘের কাজল মাহমুদ, জননেতা তৌহিদ হোসেন, বিশিষ্ট রাজনীতিক সরদার আলী হোসেন, সাংবাদিক শাহ আলম সনি, ফাইজার চৌধুরী, জাহিদ জীবন, মফিজ জোয়ার্দ্দার, আতিয়ার রহমান, হোসেন জাকির, শেখ সেলিম, শেখ পিন্টু, অ্যাডভোকেট মানিক আকবর, অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি সাগর, ছড়াসম্রাট আহাদ আলী মোল্লা, কবি গোলাম কবীর মুকুল, প্রকৃতিপ্রেমী হেলাল হোসেন জোয়ার্দ্দার, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী জাহিদুল হাসান জোয়ার্দ্দার, জাকির হোসেন (জাকির মোটর), শামসুল আলম বাবু (সৌদি অটো), সঙ্গীত শিল্পী সহিদুল হক বিশ্বাস, ব্যাঙ্কার ইব্রাহিম খলিল, মো. নেপু, মন্টু প্রমুখ। ইফতারের আগে দোয়া পরিচালনা করেন চুয়াডাঙ্গার বায়তুল মা’মুর জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা জাহিদ।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More