মধু মাসের মিষ্টি ও সুস্বাদু ফল মিশে আছে আমাদের ঐতিহ্যের সাথে

দামুড়হুদার শিবনগরের ডিসি ইকোপার্কে মধু মাসে ফল উৎসবে পরিদর্শনকালে জেলা প্রশাসক

কার্পাসডাঙ্গা প্রতিনিধি: দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গার শিবনগরের ডিসি ইকোপার্কে অনুষ্ঠিত হয়েছে মধু মাসে ফল উৎসব। গতকাল শনিবার দিনব্যাপী জেলা প্রশাসকের আয়োজনে ফল উৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। বেলা ১২টার দিকে প্রধান অতিথি হিসেবে ফল উৎসবে পরিদর্শনে আসেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান। পরিদর্শনকালে তিনি বলেন, সুস্বাদু ফলের অধিক সরবরাহ থাকায় সবার কাছে এখন মাসটি মধুমাস নামেই পরিচিত। বছরজুড়ে কমবেশি ফল পাওয়া গেলেও সবচেয়ে বেশি পাওয়া যায় এ সময়ে। এবারো বিভিন্ন রসালো ফলের সমাহার নিয়ে মধু মাসের আগমন। রসালো ফলে এখন ভরপুর বাজার। আম, জাম, লিচু, কাঁঠাল, জামরুল, তরমুজ, আনারস ছাড়াও হরেক রকম ফল বাজারে পাওয়া যায়। মধুরসে ভরা বিভিন্ন জাতের ফলের মিষ্টি সৌরভ নিয়ে আগমন মধুমাস। মধু মাসের মিষ্টি ও সুস্বাদু ফল মিশে আছে আমাদের ঐতিহ্যের সাথে। প্রতি বছরের মতো এবারও মৌসুমী ফলে ছেয়ে গেছে বিভিন্ন ফলবাজার। জেলা প্রশাসন এরকম আয়োজন করার জন্য তিনি জেলা প্রশাসনের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সাজিয়া আফরিন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আরাফাত রহমান, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান, দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সানজিদা বেগম, আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রনি আলম, জীবননগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফুল ইসলাম, আরডিসি শেখ মো. রাসেল, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাজহারুল ইসলাম, দামুড়হুদা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুদীপ্ত কুমার সিংহ, জীবননগর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) তিথী বিশ্বাস, আলমডাঙ্গা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রেজোয়ানা নাহিদ, কার্পাসডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল করিম, জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার বিএম তারিকুজ্জামান, সুরাইয়া বেগম, সহকারী কমিশনার মো. হাবিবুর রহমান, সহকারী কমিশনার জাকির হোসেন, সহকারী কমিশনার মো. সাদাত হোসেন, সহকারী কমিশনার নজরুল ইসলাম, নূর পেয়ারা বেগমসহ সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারিবৃন্দ। পরে সন্ধ্যার সময় চড়ুইভাতি প্রাঙ্গনে জেলার সংগীত শিল্পীদের পরিবেশনায় সাংস্কতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক পত্নী মেহেনাজ খান বাঁধন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More