আলমডাঙ্গায় রেললাইনের ওপর থেকে হাত-পা কাটা কিশোরের লাশ উদ্ধার

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলায় রেললাইনে শরীর থেকে দুই পা ও ডান হাত বিচ্ছিন্ন এক কিশোরের লাশ উদ্ধার করেছে রেলওয়ে পুলিশ। গতকাল রোববার বেলা ১১টার দিকে কালিদাসপুর ইউনিয়নের রেল জগন্নাথপুর এলাকায় রেললাইনের ওপর থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। মৃত সানারুল হক (১৬) উপজেলার কালিদাসপুর ইউনিয়নের পারকুলা গ্রামের দায়পাড়ার ঝড়ু ম-লের ছেলে। সে আলমডাঙ্গা শহরের একটি রেস্তোরাঁর কর্মচারী ছিলো। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ দুপুরে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের মর্গে নেয়া হয়েছে। রেলওয়ে পুলিশ জানিয়েছে, সানারুল ট্রেনে কাটা পড়ে মারা গেছে। তবে কালিদাসপুর ইউপির চেয়ারম্যান শেখ আশাদুল হকসহ স্থানীয় একাধিক সূত্র এ বিষয়ে তদন্তের দাবি জানিয়েছে।
সানারুল হকের বড় ভাই আনারুল হক মুঠোফোনে বলেন, ‘ছয় ভাই-বোনের মধ্যে সানারুল সবার ছোট। বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী হওয়ায় তার আচরণ ছিলো শিশুর মতো, অনেকটাই সহজ-সরল। দুই মাস ধরে আলমডাঙ্গা পৌর পশুহাট এলাকার বাবুর হোটেলে কাজ করেছে। গত দুই মাসে সে বাড়ি আসেনি। সানারুল কী কারণে রেললাইনের ওপর গেলো তা বুঝতে পারছি না। তার কোনো শত্রু ছিলো না।’ কালিদাসপুর ইউপির চেয়ারম্যান শেখ আসাদুল হক বলেন, নিহত কিশোরের একই সঙ্গে দুই পা ও ডান হাত শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন। একই সঙ্গে হাত-পা বিচ্ছিন্ন হওয়ার ঘটনা সচরাচর দেখা যায় না। বিষয়টি নিয়ে অনুসন্ধান করা দরকার। রেলওয়ে পুলিশ চুয়াডাঙ্গা রেলস্টেশন ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) মাসুদ রানা বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, গতকাল শনিবার দিবাগত মধ্যরাতে ঢাকা থেকে খুলনাগামী চিত্রা এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়ে সানারুল মারা যেতে পারে। তবে লাশের ধরণ দেখে সন্দেহ হয়। যে কারণে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ উদ্ধারের পর চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের মর্গে নেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More