সকল শিশুর প্রতি সমদৃষ্টিসহ বেড়ে ওঠার স্বাভাবিক পরিবেশ প্রয়োজন

জাতীয় কন্যা শিশু দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক আমিনুল ইসলাম খান

স্টাফ রিপোর্টার: জাতীয় কন্যা শিশু দিবস উপলক্ষে শোভাযাত্রা শেষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক আমিনুল ইসলাম খান দেশ-বিদেশের সকল নারী শিশুর কল্যাণ কামনা করে বলেছেন, আমাদের দেশ গত ২০ বছরে অনেকটা এগিয়েছে। নারী ক্ষমতায়নে নানামুখি কর্মসূচি হাতে নিয়ে তা বাস্তবায়নও করা হচ্ছে। কন্যা শিশুদের স্বাভাবিকভাবে বেড়ে উঠে প্রতিভা বিকাশের পরিবেশ গড়ে তোলার অনন্য উদাহরণও সৃষ্টি হয়েছে। হ্রাস পেয়েছে বাল্য বিয়ে। পুষ্ঠিহীনতা কমেছে। তা সম্পূর্ণভাবে দূর কারার তথা দারিদ্র্য বিমোচনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। অধিকার নিশ্চিত করতে সমাজে সচেতনতামূল নানা পদক্ষেপ নিয়ে তা বাস্তবায়নে আন্তরিক রয়েছে সরকার।
গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টায় চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সাজিয়া আফরীন। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে আরও বলেন, সময়ের আবর্তে তরান্বিত হয়েছে নারী সমাজের অগ্রযাত্রা। বেড়েছে নারী শিক্ষার হার। খেলা ধুলাতেও আশা জাগিয়েছে। কন্যা শিশু সমাজের বা পরিবারের বোঝা নয়। কোনভাবেই যাতে বৈশম্যের শিকার না হয় তা নিশ্চিত করতে হবে। মনে রাখতে হবে শিশু পুরুষ হোক বা নারী- সে আমাদের সন্তান। সমদৃষ্টিতে আদর যত্মে তথা গুরুত্বের সাথে বেড়ে ওঠার সকল প্রকার পরিবেশ নিশ্চিত করা আমাদের দায়িত্বের অংশ। আভিভাবকসহ সমাজের সচেতনমহলকে এ দিকে বিশেষভাবে দৃষ্টি দেয়া প্রয়োজন। নারী ও পুরুষ শিশুরা সমানভাবে বেড়ে ওঠার পরিবেশ পেলে জাতি দ্রুত পৌছুবে কাঙ্খিত লক্ষে।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আবু তারেক, চুয়াডাঙ্গা পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর আলম মালিক খোকন। বক্তব্য দেন চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাবসভাপতি সরদার আল আমিন, জেলা মহিলা লীগ নেতৃ সাবেক কাউন্সিলর নূরুন নাহার কাকলী, দশম শ্রেনীর ছাত্রী থাকা কালে নিজের বাল্য বিয়ে নিজে প্রতিরোধ করে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থ্পানকারী বর্ষা প্রমুখ। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু তারেক নারী শিশু শিক্ষার্থীদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, সরকার শুধু নিখরচায় লেখাপড়ার সুযোগই করে দেয়নি, নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য দেশে ট্রিপল নাইন তথা ৯৯৯ নম্বরে কল করলেই দ্রুত সেবা প্রদানের বিষয়টিও নিশ্চিত করেছে। এ নম্বরে ফোন করে পুলিশ, ফায়ারব্রিগেড ও অ্যাম্বুলেন্স সেবা দ্রুত পাওয়া যায়। অনুষ্ঠানের সভাপতি সাজিয়া আফরীন নারী শিশুদের অধিকার সম্পর্কে সচেতন হওয়ার পুনঃ পুনঃ তাগিদ দেন।
জাতীয় কন্যা শিশু দিবস উপলক্ষে আায়োজিত আলোচনা সভা শেষে দুস্থ মহিলা ও শিশু সাহায্য তহবিলের চেক বিতরণ করা হয়। জেলা প্রশাসন ও মহিলা বিষয়ক অধিদফতর চুয়াডাঙ্গা আয়োজিত অনুষ্ঠান মালার আলোচনসভায় স্বাগত বক্তব্য দিয়ে উপস্থাপনার দায়িত্ব পালন করেন চুয়াডাঙ্গা মহিলা বিষয়ক অধিদফতরের ভারপ্রাপ্ত উপ প্িরচালক মাকসুরা জান্নাত। তিনি তার বক্তব্যে জাতীয় কন্যা শিশু দিবস ও এবারের প্রতিপাদ্য “সময়ের অঙ্গিকার, কন্যা শিশুর অধিকার” এর গুরুত্ব তুলে ধরেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More