জীবননগরের উথলীতে ফুটবল টুর্নামেন্টের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এমপি টগর

স্মার্টফোন ছেড়ে লেখাপড়া ও খেলাধুলায় মনোনিবেশ করতে হবে
জীবননগর ব্যুরো: স্মার্টফোনের আসক্তি কমিয়ে পড়ালেখায় মনোনিবেশ করে দক্ষ যুবসমাজ তৈরি করতে হবে। খেলাধুলা শরীরকে সুস্থ এবং মন প্রফুল্ল রাখে। উন্নত জাতি ও মাদকমুক্ত সমাজ গঠনে খেলাধুলার কোনো বিকল্প নেই। খেলাধুলার মাধ্যমে বাংলাদেশ আজ সারাবিশ্বে পরিচিতি লাভ করেছে। আমাদের ছেলেরা খেলাধুলার মাধ্যমে বাংলাদেশকে বিশ্ব দরবারে পরিচিতি ঘটিয়েছে।
গতকাল বুধবার বিকেলে জীবননগর উপজেলার উথলী বাজার ফুটবল মাঠে সেনেরহুদা যুব সংঘের আয়োজনে ১৬ দলের নকআউট ভিত্তিক ফুটবল টুর্নামেন্টের চুড়ান্ত পর্বের খেলা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি মো. আলী আজগার টগর এসব কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, আজ আমরা গর্ব করে বলতে পারি খেলাধুলায় বাংলাদেশ পিছিয়ে নেই। খেলাধুলা মানবিক মূল্যবোধ ও মেধা বিকাশের অন্যতম মাধ্যম। তাই সব শ্রেণি-পেশার মানুষকে খেলাধুলার মান উন্নয়নে এগিয়ে আসতে হবে। শিক্ষার্থীদের স্মার্টফোনের আসক্তি কমিয়ে লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলায় মনোনিবেশ করতে হবে। তবেই আগামী দিনে আমরা সুস্থ ও মেধাসম্পন্ন জাতি পাবো। মাদকমুক্ত দেশ গড়তে আমাদের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। তবেই বাংলাদেশ সারাবিশ্বে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারবে। আমার নির্বাচনী এলাকায় ছেলেমেয়েরা শিক্ষায় অনেকটা এগিয়ে গেছে। তার সঙ্গে খেলাধুলার মান আরও বৃদ্ধি করতে হবে। এসময় তিনি চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দলের খেলোয়াড়দের হাতে পুরষ্কার তুলে দেন।
উথলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আব্দুল হান্নানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জীবননগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম মোর্তুজা, সাধারণ সম্পাদক উপধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আবু মো. আব্দুল লতিফ অমল, জীবননগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজি মো. হাফিজুর রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম ঈশা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়েশা সুলতানা লাকি, উথলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোবারক সোহেল আহম্মেদ প্রদীপ, সেনেরহুদা জান্নাতুল খাদরা দাখিল মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. আবু জাফর এবং সেনেরহুদা যুব সংঘের সভাপতি আশরাফুল ইসলাম প্রমুখ।
চুড়ান্ত পর্বের খেলায় সেনেরহুদা ফুটবল একাদশ ট্রাইবেকারে ৪-২ গোলের ব্যবধানে চুয়াডাঙ্গা ফিউচার ফুটবল একাদশকে পরাজিত করে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More