দেশে করোনায় আরও ৩৮ জনের মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার: দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে শনাক্ত কমলেও বেড়েছে মৃত্যু। ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত আরও ৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা আগের দিনের চেয়ে ১২ জন বেশি। এ নিয়ে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১২ হাজার ৩৪৮ জন। একদিনে আরও ১ হাজার ২৮ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরে পড়েছে। এ সংখ্যা আগের দিন ছিলো ১ হাজার ৫০৪। তবে এক দিনের ব্যবধানে নমুনা পরীক্ষা প্রায় ৬ হাজার কমেছে। গত শুক্রবার নমুনা পরীক্ষা হয়েছিলো ১৮ হাজার ২৯৪টি, সেখানে শনিবার নমুনা পরীক্ষা কমে দাঁড়ায় ১২ হাজার ২৩০টিতে। সবমিলিয়ে দেশে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ৮৭ হাজার ৭২৬ জন। সরকারি হিসাবে, আক্রান্তদের মধ্যে একদিনে আরও ৭৫৯ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৭ লাখ ২৯ হাজার ৭৯৮। শনিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
কোভিড-১৯ পরিস্থিতির আগের সপ্তাহের সঙ্গে তুলনা করলে দেখা যায়, এক সপ্তাহে নমুনা পরীক্ষা প্রায় ১৭ শতাংশ বেড়েছে, তাতে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েছে ৩ শতাংশ। চলতি সপ্তাহে শনাক্ত হয়েছে ৭ হাজার ৯৩০ জন। আগের সপ্তাহে শনাক্ত হয় ৭ হাজার ৬৬৯ জন। তবে এক সপ্তাহে মৃত্যু কমেছে। আগের সপ্তাহে মারা যায় ২৪৬ জন। চলতি সপ্তাহে মারা যান ২২৪ জন। সে হিসাবে এ সপ্তাহে মৃত্যু কমেছে ৮ দশমিক ৯৪ শতাংশ। আগের সপ্তাহের চেয়ে চলতি সপ্তাহে সুস্থ কম হয়েছেন ৪২ দশমিক ৭৩ শতাংশ।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সারা দেশে ৪৮২টি পরীক্ষাগারে নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৮ দশমিক ৪১ শতাংশ, এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৫৭ শতাংশ। সর্বমোট শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯২ দশমিক ৬৫ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৫৭ শতাংশ। এক দিনে যারা মারা গেছেন ২৫ জন পুরুষ, আর নারী ১৩ জন। তাদের ৩২ জন সরকারি হাসপাতালে, ছয়জন বেসরকারি হাসপাতালে মারা যান। মৃতদের মধ্যে ১৬ জনের বয়স ছিলো ৬০ বছরের বেশি, ১৩ জনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে, দুজন করে মোট ছয়জনের বয়স ৪১ থেকে ৫০, ২১ থেকে ৩০ ও ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে এবং তিনজনের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ছিলো। মৃতদের মধ্যে ১৬ জন ঢাকা বিভাগের, সাতজন চট্টগ্রাম বিভাগের, চারজন করে মোট ১২ জন রাজশাহী, খুলনা ও সিলেট বিভাগের, একজন বরিশাল বিভাগের এবং দুজন রংপুর বিভাগের বাসিন্দা ছিলেন। এ পর্যন্ত মৃত ১২ হাজার ৩৪৮ জনের মধ্যে ৮ হাজার ৯২৮ জন পুরুষ এবং ৩ হাজার ৪২০ জন নারী।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More