ঝিনাইদহের আশাননগর গ্রামে ধানী জমি কেটে পুকুর খনন

পানিতে ডুবে ৫০বিঘা জমির পাকা ধানের ব্যাপক ক্ষতি : থামছে না গ্রামবাসীর কান্না

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ঝিনাইদহ সদরের আশাননগর গ্রামের মাঠে ধানী জমি কেটে লাখ লাখ টাকার মাটি ভাটায় বিক্রি করে পুকুর কেটেছে ওই এলাকার দু’জন প্রভাবশালী। পুকুর কাটতে এলাকার কিছু কৃষক জমি দিতে না চাইলেও সেন্টিগেট পূর্বক তাদেরকে এক প্রকারে বাধ্য করে পুকুর কেটেছে সদর উপজেলার আশাননগর গ্রামের মৃত মোহাম্মদ আলীর ছেলে তৈয়ব আলী ও চুয়াডাঙ্গা সদরের জীবনা গ্রামের মৃত সোমা মন্ডলের ছেলে আইনাল বিশ্বাস। সেই পুকুর ও মটরের পানিতে ডুবে ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে আশাননগরের মাঠের প্রায় ৫০ বিঘা জমির ধান। জমির পাকা ধানের ব্যাপকভাবে ক্ষতি হওয়ায় থামছে না আশাননগর গ্রামের কৃষকদের কান্না।

ভয়াবহ করোনা ভাইরাসের ছোবলে দেশে ব্যাপকভাবে খাদ্য সামগ্রী ঘাটতি হবে ভেবে প্রধানমন্ত্রী দেশের আ.লীগ কর্মীদের কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। এসব সরকারি নির্দেশনাকে পায়ে মাড়িয়ে ধানী জমি গিলে খাওয়া পুকুর ব্যাবসায়ী তৈয়ব আলী ও আইনালের পুকুর ও মটরের পানিতে ডুবে শেষ হচ্ছে মাঠের ধান। ভয়াবহ করোনা ভাইরাসে ব্যাপকভাবে খাদ্য সামগ্রী ঘাটতি হওয়ার পরেও কোনোপ্রকার ব্যাবস্থা নিচ্ছে না তৈয়ব আলী ও আইনাল। আশাননগর গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত কৃষদের মধ্যে মুরাদ, সহিদুল, লতিফ, রহম, আবুছদ্দি ও নয়ন সাংবাদিকদের মাধ্যমে তাদের প্রায় ৫০ বিঘা জমির ক্ষতিপূরনের দাবি জানিয়েছেন জেলা প্রশাসকের নিকট।

এ বিষয়ে সাধুহাটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কাজী নাজির উদ্দিন ঘটনা স্বীকার করে সাংবাদিকদের বলেন, যেখানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভয়াবহ করোনা ভাইরাসের আক্রমনে দেশে ব্যাপকভাবে খাদ্য সামগ্রী ঘাটতি হবে ভেবে দেশের আ.লীগ কর্মীদের কৃষকের ধান কেটে ঘরে তুলে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। সেখানে সরকারি নির্দেশনাকে পায়ে মাড়িয়ে তৈয়ব আর আইনালের পুকুর ও মটরের পানিতে ডুবে ৫০ বিঘা জমির পাকা ধানের  যে ক্ষতি হয়েছে, কৃষকদের সেই ক্ষতি পূরনের দাবি করছি। এদিকে অভিযুক্ত তৈয়ব আলী ও আইনাল ঘটনা অস্বীকার করে বলেন, আমার মটরের পানি দিয়ে তাদের ধান চাষ করেছে। চুক্তি অনুযায়ী এখন মটরের বিল না দিয়ে উল্টো আমার নামে অভিযোগ করছে। ৫০ বিঘা জমির পাকা ধানের ক্ষতির বিষয়টি তদন্ত করতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বদরুদ্দোজা শুভ আজ মঙ্গলবার তিনজনকে পাঠিয়ে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেবেন বলে সাংবাদিকদের জানান।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More