‘কাজের বিনিয়মে যৌনতা’র প্রস্তাব, অমিতাভ রেজার অস্বীকার

আয়নাবাজি খ্যাত নির্মাতা অমিতাভ রেজা ‘যৌনতার বিনিমিয়ে কাজ’-এর প্রস্তাব দিয়েছেন- এ অভিযোগ করেছেন এক তরুণী। নিজের সোশ্যাল মিডিয়ার হ্যান্ডেলে বেশ কিছু স্ক্রিনশট প্রকাশ করেছেন, যেখানে ‘অমিতাভ রেজা চৌধুরী’ নামের ওই ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এমন ধরনের অনৈতিক প্রস্তাবের বিষয়টি উল্লেখ রয়েছে। তবে বিষয়টিকে অমিতাভ রেজা অস্বীকার করে বলেছেন, সেটা ফেইক আইডি। তিনি তাঁর ভেরিফায়েড আইডি থেকে তরুণীর অভিযোগকৃত অ্যাকাউন্টের স্ক্রিনশট পোস্ট করে বলেছেন, এটি ভুয়া আইডি।
তরুণী স্ক্রিনশট প্রকাশ করে লিখেছেন, ‘অমিতাভ রেজা চৌধুরী! তাঁর ফ্যান ফলোয়ারের অভাব নাই নিশ্চয়ই। আয়নাবাজি দেখার পর আমিও তাঁর মোটামুটি ফ্যান বলা চলে। কয়েক বছর হলো উনি আমার লিস্টে রয়েছেন। কয়েকবার আলাপ হয়েছে ক্যাম্পাস লাইফ নিয়ে। আজ হঠাৎ আমার ডে’র ক্লিভেজ বের করা ছবি দেখে আমাকে নক দেন তিনি (যেটা আমি প্রথমে খেয়াল করিনি)। তারপর শুটের অফার দিল এবং বাকি কথা সব স্ক্রিনশটে দেওয়া আছে। দ্যাখেন! যারা বলছে এটা তার ফেইক আইডি, তার ভেরিফায়েড আইডি আছে তাদের জন্য ব্রো তার সাথে আমার ভিডিও কলেও কথা হয়েছে, যার স্ক্রিনশটও দিলাম। তার দুইটা আইডিই আমার লিস্টে ছিল। এরপর সে আমাকে শুটের জন্য অনেক কিছু বলল; বাংলালিংকের বিশাল শুট, বিলবোর্ড হবে ব্লা ব্লা। তারপর শর্ত হিসেবে বলল, আজকে প্রডিউসারের সঙ্গে সেক্স করতে হবে! না করে দিলাম, যার কারণে দুইটা আইডি থেকেই আনফ্রেন্ড মারল।’ তবে তরুণীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে অ্যাকাউন্টটিকে ফেক বা ভুয়া বলে নিজের ভেরিফায়েড অ্যাকাউন্ট থেকে জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘স্ক্রিনশটে যে ফেসবুক একাউন্টটি দেখতে পাচ্ছেন এটা একটা ফেইক/ভুয়া একাউন্ট। আমার নামে খোলা এমন অনেক ভুয়া একাউন্টে ফেসবুক এখন সয়লাব। অনেকে আমার সাথে যোগাযোগ করতে চেয়ে এই সমস্ত ভুয়া একাউন্ট দ্বারা বিভ্রান্ত হচ্ছেন। আমার পরিচয় ব্যবহার করে এই সব ভুয়া একাউন্ট থেকে যারা অন্যদের সাথে প্রতারণা করে যাচ্ছেন; অনুরোধ করব এই কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকুন। তবে ওই তরুণীর দাবি অমিতাভ রেজা দুটো আইডিই পরিচালনা করেন। এদিকে, সংবাদ সংস্থা ইউএনবিতে কর্মরত শুভ্রা গোস্বামীও অমিতাভ রেজার বিরুদ্ধে একই অভিযোগ এনেছেন। তিনি বলছেন, ‘দেশের একজন বড়সড় ডিরেক্টর কে নিয়ে নারীঘটিত কেলেংকারীর স্ক্রিনশট ভেসে বেড়াচ্ছে ফেইসবুকে। এবং তিনি সহ তার অনুসারীরা অকপটে অস্বীকার করছেন ব্যাপারগুলো। ফেইক আইডি বলে চালিয়ে দিচ্ছেন। কিন্তু আজ থেকে ২ বছর আগে তিনি যখন রিকশা গার্লের জন্য ক্যারেক্টার খুজছিলেন তখন তার একমাত্র আইডি যেটাকে তিনি নিজের বলে স্বীকার করছেন সেই আইডি থেকে আমার সাথে কথা হয়েছিল। তিনি একই ভাবে আমার শরীরের মাপ জানতে চেয়েছিলেন এবং বলেছিলেন গিভ এন্ড টেক করতে চাই কিনা? আমি প্রথমে বুঝতে পারিনি, পরে তিনি বলেন আপনি যথেষ্ট বড় নিশ্চই বুঝতে পারছেন! তখন আমি তাকে লিখেছিলাম অভিনয় নিয়ে একাডেমিক্যালি পড়াশোনা করে সেই অভিনয় করবার জন্য এই ধরনের প্রস্তাব পেতে হবে কখনো ভাবিনি।’

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More