চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপারের আরও একটি মানবিক অবদানের দৃষ্টান্ত

স্টাফ রিপোর্টার: মুজিববর্ষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার” এই শ্লোগানকে একের পর এক বাস্তবে রুপান্তর করে চলেছেন চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার। পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর-২০২০ উপলক্ষ্যে চুয়াডাঙ্গা সরকারী শিশু পরিবারের (বালিকা)৭১শিশুকে নতুন জামা “ঈদ উপহার” প্রদানকরা হয়েছে। চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার মোঃ জাহিদুল ইসলামের বিশেষ উদ্যোগে এই ঈদ উপহার প্রদান করা হয।

পুলিশের তরফে বলা হয়েছে, বৈশ্বিক মহামারীর অংশ হিসেবে বাংলাদেশেও করোনা ভাইরাসের প্রভাব পড়লে করোনা প্রতিরোধে বাংলাদেশ সরকার লকডাউন কর্মসূচি গ্রহণ করে। ফলে মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়ে। বিষয়টি অনুধাবন করে চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার ২৯ মার্চ থেকে রাতের অন্ধকারে কর্মহীন মানুষের ঘরে ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেয়া শুরু করেন। ২১ মে পর্যন্ত ৭১১৩ প্যাকেট খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। এ কর্মসূচি অব্যাহত রয়েছে।  শুধু খাদ্য সামগ্রী বিতরণই নয়, মাদক উদ্ধার, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা, করোনা মোকাবেলায় লকডাইন কর্মসূচি পরিচালনা, দুস্থদের ঈদ উপহার প্রদান, কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা, এতিমতের সাথে ইফতার, করোনা মোকাবেলায় জনগনকে সচেতন করতে ব্যাপক প্রচার, ফোন কল ও এসএমএস পেয়ে খাদ্য ও ঔষধ সরবরাহ, ভাঙ্গা সংসার জোড়া লাগানোসহ সকলের সাথে সমন্বয় সাধন করে ইতোমধ্যে তিনি চুয়াডাঙ্গা জেলাবাসীর নিকট মানবিক পুলিশ সুপার হয়ে উঠেছেন। এরই ধারাবাহিকতায় করোনা ক্রান্তিলগ্ন আজ শুক্রবার চুয়াডাঙ্গা সরকারী শিশু পরিবার বালিকাতে বসবাসরত ৭১  শিশুকে ঈদ উপহার হিসেবে সীট কাপড় দিয়ে তৈরি থ্রী-পিছ প্রদান করেন। এসময় এক প্রশ্নের জবাবে পুলিশ সুপার বলেন, দেশের জনগনকে সেবা করার জন্য সরকার আমাকে বেতন, বাসা, গাড়ীসহ অনেক সুযোগ-সুবিধা দিয়েছেন। ফলে আমি পেশাগত ও নৈতিক দায়িত্ববোধ থেকে আমার সাধ্যমত চেষ্টা করি জনগণকে সেবা দিতে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More