মেহেরপুরের মুজিবনগরে শিবপুর গ্রামে গোপন বৈঠক : জেলা জামায়াতের আমিরসহ ১৩ নেতাকর্মী আটক ॥ ককটেল উদ্ধার

মুজিবনগর প্রতিনিধি: মেহেরপুরের মুজিবনগরে জেলা জামায়াতের আমীরসহ ১৩ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৭টার দিকে শিবপুর গ্রামের ফজলুল হক গাজীর বাড়ী থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। আটককৃতদের মধ্যে জামায়াতের ৫ নারী কর্মী রয়েছেন। আটকের সময় তাদের কাছ থেকে তিনটি ককটেল, জিহাদী বই, ৮টি মোবাইল ও ৫টি মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়েছে বলে জানায় পুলিশ।
আটককৃতদের মধ্যে জেলা জামায়াতের আমির তাজউদ্দীন, জেলা জামায়াতের সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক জরিজিস হুসাইন, জেলা জামায়াতের তালিমুল কোরআন বিভাগের পরিচালক মশিউর রহমান, স্ত্রী দারিয়াপুর ইউপি’র ৯নং ওয়ার্ডের রোকন সেলিনা আক্তার, মুজিবনগর উপজেলা জামায়াতের আমির খানজাহান আলী, স্ত্রী মোনাখালী ইউপির ৫নং ওয়ার্ডের রোকন মমতাজ বেগম, মুজিবনগর উপজেলা জামায়াতের সেক্রেটারি খাইরুল বাসার, স্ত্রী মোনাখালী ইউপির ৪নং ওয়ার্ডের রোকন সাহেরা খাতুন, মুজিবনগর উপজেলা জামায়াতের দাওয়াত বিভাগের সেক্রেটারি ফিরাতুল ইসলাম নাইম, মুজিবনগর উপজেলা জামায়াতের আদর্শ শিক্ষক পরিষদের সেক্রেটারি মোশারোফ হোসেন, স্ত্রী মোনাখালী ৭নং ওয়ার্ডের রোকন রোকেয়া খাতুন, মুজিবনগর উপজেলা জামায়াতের শ্রমিক কল্যাণ বিভাগের সেক্রেটারি ফজলুল হক গাজি ও মোনাখালী ইউপি ৬নং ওয়ার্ডের রোকন উম্মে হানি। সরকারবিরোধী ষড়যন্ত্রমূলক গোপন সভা করার সময় তাদেরকে আটক করা হয়েছে বলে দাবি করেছে পুলিশ।
মুজিবনগর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.আব্দুল হাশেম জানান, উপজেলা জামায়াতের শ্রমিক কল্যাণ বিভাগের সেক্রেটারি ফজলুল হক গাজির বাড়িতে গোপন সভা করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালায় মুজিবনগর থানা পুলিশের একটি দল। সেখান থেকে বাড়ির মালিকসহ ১৩ জনকে আটক করা হয়। এদের মধ্যে জামায়াতের ৫ নারী কর্মীও রয়েছেন। তাদের কাছ থেকে ৩টি ককটেল, বিপুল সংখ্যক জিহাদী বই ও ৫টি মোটরসাইকেল উদ্ধার করে জব্দ দেখানো হয়েছে। আটক ১৩ নেতাকর্মীর নামে বিস্ফোরক দ্রব্য ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দায়ের করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে বলে জানান ওসি আব্দুল হাশেম।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More