আলমডাঙ্গার বন্দরভিটা গ্রামে বিয়ের প্রলোভনে গৃহবধূকে  ভাগিয়ে নিয়ে ধর্ষণ : অভিযুক্ত রাসেলের বিরুদ্ধে মামলা

স্টাফ রিপোর্টার: আলমডাঙ্গার বন্দরভিটা গ্রামে বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে গৃহবধূকে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত রাসেলের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মানবতা ফাউন্ডেশনের সহায়তায় গতকাল সোমবার বিকেলে আলমডাঙ্গা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করা হয়। বন্দরভিটা গ্রামের ঠান্ডুর ছেলে অভিযুক্ত রাসেলকে আসামি করে মামলাটি দায়ের করেন ওই গৃহবধূর পিতা।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, আলমডাঙ্গার গাংনী ইউনিয়নের বন্দরভিটা গ্রামের দিনমজুরের যুবতি কন্যাকে দীর্ঘদিন ধরে উত্ত্যক্ত করে আসছিলো একই গ্রামের ঠান্ডুর ছেলে রাসেল। ওই যুবতির বিয়ের পর তাকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে গত ১১ জুন বিকেলে স্বামীর বাড়ি ভাঙবাড়িয়ার মহেশপুর থেকে ভাগিয়ে নিয়ে আসে রাসেল। ওই গৃহবধূকে নিজ বাড়িতে নিয়ে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তাকে ধর্ষণ করে অভিযুক্ত রাসেল। এসময় প্রেমিক রাসেলকে বিয়ে করার জন্য বললে ওইদিনই রাত ১টার দিকে রাসেলসহ তার বাড়ির লোকজন ওই গৃহবধূকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়।
মানবতা ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক অ্যাড. মানি খন্দকার বলেন, নির্যাতিতা গৃহবধূ সমাজপতিদের কাছে বিচার না পেয়ে গত রোববার আইনি সহায়তা চেয়ে মানবতা ফাউন্ডেশনে আবেদন করেন। আবেদনের প্রেক্ষিতে গতকাল সোমবার মানবতা ফাউন্ডেশনের সহায়তায় বন্দরভিটা গ্রামের ঠান্ডুর ছেলে রাসেলের বিরুদ্ধে আলমডাঙ্গা থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়। নির্যাতিতা গৃহবধূকে সুবিচার পাইয়ে দিতে মানবতা ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে যাবতীয় আইনি সহায়তা প্রদান করা হবে। এসময় উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা আদালতের সিনিয়র আইনজীবী কাইজার হোসেন জোয়ার্দ্দার, সংস্থার তথ্য কর্মকর্তা অ্যাড. নওশের আলী, অপারেশন অফিসার অ্যাড. জীল্লুর রহমান।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More