অপরাধ দমনে পুলিশের পাশাপাশি সাধারণ মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে

বিট পুলিশিং কার্যক্রমের উদ্বোধনকালে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আবু রাসেল
স্টাফ রিপোর্টার: ‘মুজিববর্ষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে চুয়াডাঙ্গার জীবননগর ও দর্শনার দুটি ইউনিয়নে বিট পুলিশিং কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল রোববার জীবননগর উপজেলার সীমান্ত ইউনিয়ন ও দর্শনার পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়নে বিট পুলিশিং কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়। পৃথক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (দামুড়হুদা সার্কেল) আবু রাসেল। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, পুলিশের একার পক্ষে সব অপরাধ দমন করা সম্ভব নয়। দরকার জনগণের আন্তরিকতা ও সহযোগিতা। যেকোনো অপরাধের তথ্য নির্ভয়ে পুলিশকে জানান। আপনাদের জন্য জীবননগর থানার ফোন দিনরাত খোলা থাকে। তিনি আরও বলেন, পুলিশ জনগণের বন্ধু ছিলো, আছে ও থাকবে। সেক্ষেত্রে পুলিশি সেবা জনগণের জন্যই। অপরাধীদের পরিচয় অপরাধীই। অপরাধীরা যতো শক্তিশালী হোক না কেন পুলিশের হাত থেকে রেহাই পাবে না। মাদক, সন্ত্রাস, বাল্যবিয়ে, চোরাচালান, নারী নির্যাতন, ইভটিজিংসহ সব ধরনের অপরাধ দমনে আমরা সর্বদা সচেষ্ট। আমাদের একটু সহযোগিতার হাত বাড়ালে নিশ্চিত আপনার এলাকাকে অপরাধমুক্ত করবো। সবাইকে একটি কথা মনে রাখতে হবে অপরাধমুক্ত সমাজ গঠনে পুলিশের পাশাপাশি সাধারণ মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে। বাড়াতে হবে সহযোগিতার হাত।
জীবননগর ব্যুরো জানিয়েছে, জীবননগর উপজেলার সীমান্ত ইউনিয়নে বিট পুলিশিং কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জীবননগর থানা পুলিশের আয়োজনে বিট পুলিশিং কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (দামুড়হুদা সার্কেল) আবু রাসেল। সভাপতিত্ব করেন জীবননগর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম। উপজেলায় একটি পৌরসভা ও ৮টি ইউনিয়নে মোট ১১টি বিট পুলিশিং কার্যালয় থাকবে। উদ্বোধন শেষে সারাদেশে করোনায় পুলিশ সদস্যসহ যারা মারা গেছেন তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া করা হয়। এ সময় বিশেষ অতিথি ছিলেন সীমান্ত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মঈনুল হাসান মইন, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) ফেরদৌস ওয়াহিদ, সীমান্ত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস শুকুর প্রমুখ।
দর্শনা অফিস জানিয়েছে, দর্শনার পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়নে বিট পুলিশিং কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ইউনিয়ন পরিষদের হলরুমে এ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন চুয়াডাঙ্গা সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আবু রাসেল। দর্শনা থানার অফিসার ইনচার্জ মাহাব্বুর রহমান কাজলের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এসএএম জাকারিয়া আলম, ইউনিয়ন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক জিয়াবুল হক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা তমছের আলী। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সদস্য খায়রুল ইসলাম, সাইফুল ইসলাম প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন তানভীর সাগর।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More