আলমডাঙ্গায় চুরি হওয়া ইজিবাইক উদ্ধারসহ একাধিক চুরি মামলার আসামি দুই চোর আটক

 

আলমডাঙ্গা ব্যুরো: আলমডাঙ্গায় চুরি হওয়া ব্যাটারি চালিত ইজিবাইক উদ্ধারসহ একাধিক চুরি মামলার আসামি দুই চোরকে আটক করেছে। ৩ জুলাই বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আলমডাঙ্গা মডেল স্কুলের পিছন থেকে ব্যাটারি চালিত ইজিবাইক  কৌশলে চুরি করে নিয়ে যাওয়ার কয়েক ঘন্টা পর কুষ্টিয়া মিরপুর এলাকা থেকে আসামি আটকসহ ইজিবাইকটি উদ্ধার করেছে। জানাগেছে চুয়াডাঙ্গার সুমুরদিয়ার নিলার মোড়ের আমির হোসেনের ছেলে প্রান্ত(১৮) বেশ কিছুদিন ধরে একটি ব্যাটারি চালিত ইজি বাইক ভাড়ায় নিয়ে চালিয়ে বেড়ায়। ৩ জুলাই সকালে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল থেকে অজ্ঞাত একজন যাত্রী মালামাল নিয়ে আসার জন্য ইজিবাইক চালক প্রাপ্তকে ৪শ’ টাকায় ভাড়া করে আলমডাঙ্গায় নিয়ে আসে। আলমডাঙ্গা আসার পর মডেল স্কুলের পিছনে মুক্তারের চায়ের দোকানের সামনে গাড়ি রাখে। আরও দুজন ব্যক্তি অপেক্ষা করছিল। ইজিবাইক চালক প্রাপ্ত ওই লোকটির সাথে মালামাল বহন করার জন্য নিয়ে যায়। এরপর প্রাপ্তর সঙ্গে থাকা লোকটি স্বাধীনতা স্তম্ভ মোড় থেকে হারিয়ে যায়। প্রান্ত দ্রুত গাড়ি নিকট গিয়ে দেখতে পায় গাড়িটি নেই। সে সঙ্গে সঙ্গে আলমডাঙ্গা থানা পুলিশের নিকট গিয়ে সংবাদ দেয়। আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ ঘটনার বর্ণনা শুনে গাড়িটি খুঁজতে থাকে। পরে জানতে পারে যে গাড়িটি কুষ্টিয়া মিরপুর থানা এলাকার দিকে নিয়ে গেছে। পরে আলমডাঙ্গা থানার পুলিশ পরিদর্শক অপারেশন একরামুল হোসাইন, এএসআই হামিদ ও এএসআই মোস্তফাকে নিয়ে মিরপুর থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে মিরপুর থানার কলবাড়িয়া গ্রামের বিশ^াসপাড়ার ইব্রাহিমের চায়ের দোকানের সামনে থেকে ২ চোরকে আটক করে। চোর ২জন হলো, কুমারখালী উপজেলার দয়ারামপুর গ্রামের আবু বক্করের ছেলে আমিরুল ইসলাম(৩৫) ও কুষ্টিয়া মহিনী মিল দেশালীপাড়ার আব্দুল মান্নানের ছেলে শরিফ শেখ(৩৫) কে আটক করে আলমডাঙ্গা থানায় নিয়ে আসে। আলমডাঙ্গা থানায় ইজিবাইক মালিক আরিফুজ্জামান বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছে। পরে জানা যায় আমিরুল ইসলাম ও শরিফ শেখের নামে ৮/৯টি চুরি মামলা রয়েছে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More