কেরুজ হিজলগাড়ী কৃষি খামারের ইনচার্জ ফুর্তি করতে গিয়ে গ্যাঁড়াকলে

স্টাফ রিপোর্টার: দর্শনা কেরুজ চিনিকলের হিজলগাড়ী কৃষি খামারের ইনচার্জ মনিরুল ইসলাম পরস্ত্রী নিয়ে ফুর্তি গিয়ে গ্যাঁড়াকলে পড়েছেন। বেরশিক জনতার হাতে আটক হয়ে খেয়েছেন উত্তম-মধ্যম।
জানাগেছে, দর্শনা কেরুজ চিনিকলের হিজলগাড়ী কৃষি খামারের ইনচার্জ মনিরুল ইসলাম স্থানীয় জনৈক এক নারীর সাথে ফুর্তি করতে গিয়ে গতকাল রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বেরশিক জনতার হাতে আপত্তিকর অবস্থায় আটক হয়ে গ্যাঁড়াকলে পড়েছেন। একপর্যায়ে বেরশিক জনতা ঘরের দরজা ভেঙে মনিরুলকে ঘরের বাইরে বের করে এবং উত্তম-মধ্যম দেয়। স্থানীয়রা জানান, চাকরির সুবাদে মনিরুল হিজলগাড়ী কৃষি খামারে একবছর আগে ব্যাচেলার হিসেবে খামারের কোয়ার্টারে বসবাস করে আসছে। ব্যাচেলার হওয়ায় স্থানীয় জনৈক এক নারীর সাথে মন দেয়া নেয়া চলতে তাকে তার। এ নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে বাতাসে কু-কথা ছড়াতে থাকে। বিষয়টি কেউ কেউ খামার ইনচার্জকে অবগত করলেও তাতে কোনই কর্ণপাত করেন না তিনি। বরং যারা মনিরুলকে সাবধান করতে গিয়েছে তারাই উল্টো চোখ রাঙানির শিকার হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল সন্ধ্যার পরপরই ঠা-া আবহাওয়ার সুযোগ কাজে লাগাতে গিয়ে বেরশিক জনতার হাতে আটক হন। তবে মনিরুল ইসলাম তার বিরুদ্ধে ওঠা সকল অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত হিজলগাড়ী কৃষি খামারেই কেরুজ চিনিকলের উর্ধ্বতন অফিসার এবং স্থানীয় ক্যাম্প পুলিশের মাধ্যমে সমাধানের প্রক্রিয়া চলছিলো বলে জানাগেছে। মনিরুল ইসলামের বাড়ি ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More