গাংনীতে চোরের বিরুদ্ধে পুলিশের কঠোর অভিযানে স্বস্তি 

গাংনী প্রতিনিধি: মেহেরপুর গাংনীতে অব্যাহত চুরি প্রতিরোধে মাঠে কঠোর অবস্থানে পুলিশ। চুরির সাথে জড়িত সন্দেহে আটক আর গ্রেফতারের ঘটনায় স্বস্তি ফিরে এসেছে এলাকাবাসীর মনে। রোববার পর্যন্ত গাংনী থানা পুলিশের বিভিন্ন অভিযানে সন্দিগ্ধ ৬ চোরকে আটক করে গতকাল সোমবার মেহেরপুর আদালতে সোপর্দ করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে গাড়াবাড়ীয়া গ্রামের কাউছার ম-লের ছেলে আয়নাল হক (৩৫), গাংনী মহিলা কলেজপাড়ার সিরাজুল ইসলামের ছেলে হাবিবুর রহমান (২৮), সাহারবাটি গ্রামের ক্লাবপাড়ার দেলশাদ হোসেনের ছেলে পূর্ব মালসাদহের বাসিন্দা মানিক হোসেন (২০), ফতাইপুর গ্রামের ম-ল শেখের ছেলে জনি (৩৭), পূর্ব মালসাদহ গ্রামের শুকুর আলীর ছেলে আব্দুল হালিম (২৩) ও পূর্ব মালসাদহ গ্রামের কাওছার আলী ছেলে সিহাব আলী (১৪)।

গ্রেফতারকৃতদের সম্পর্কে স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, গ্রেফতারকৃতরা এলাকায় চোর হিসেবে চিহ্নিত। এদের অনেকের বয়স কম হলেও চুরির সাথে জড়িত ঘটনা অনেক। বিভিন্ন সময়ে পুলিশের অভিযানে এরা আটক কিংবা গ্রেফতার হয়। ছাড়া পাওয়ার কিছুদিন পর থেকেই আবারও শুরু করে চুরি।

গাংনী থানা সূত্রে জানা গেছে, গাংনী থানার এএসআই রেজওয়ান আহম্মেদসহ পুলিশের একাধিক দল গেলো কয়েকদিন ধরে পৌর এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক অভিযান পরিচালনা করে আসছে। অভিযানের পাশাপাশি চুরির সাথে কারা কারা জড়িত আর তাদের অবস্থান শনাক্তের কাজ করে যাচ্ছে পুলিশ। মাঠ পর্যায় থেকে প্রাপ্ত তথ্য উপাত্তের ভিত্তিতে গ্রেফতার আর অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানায় পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গাংনী পৌর এলাকায় সাম্প্রতিক সময়ে বাসা বাড়ি, দোকান ও মোটরসাইকেল চুরির ঘটনায় এলাকায় চুরি আতঙ্ক বিরাজ করছিলো। অনেকে রাত জেগে পাহারা করছেন সম্পদ আর দোকানপাট। এতে পুলিশের ওপরে যেমনই চাপ বাড়ছিলো তেমনই আইন-শৃঙ্খলাও অবনতির আরও আশঙ্কা করছিলেন অনেকে। এমন পরিস্থিতিতে পুলিশের এই অভিযান ও ৬ জনকে গ্রেফতারের ঘটনায় সাধুবাদ জানিয়েছেন অনেকে। এ ধরনের অভিযান চলমান রাখারও দাবি জানিয়েছেন তারা।

গাংনী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বজলুর রহমান জানান, চুরি প্রতিরোধে পুলিশের পক্ষ থেকে যা যা করণীয় তাই করা হচ্ছে। অভিযানের পাশাপাশি চোরদের সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করছে পুলিশ। যেকোনো মূল্যে চুরি প্রতিরোধে প্রস্তুত পুলিশ।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More