চুয়াডাঙ্গার কেদারগঞ্জে বাস-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে একজন আহত

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার কেদারগঞ্জ বাজারের অদূরে যাত্রীবাহী বাস ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে মোটরসাইকেল চালক সাব্বির হোসেন (২৫) নামে এক যুবক গুরুতর আহত হয়েছে। স্থানীয়রা আহত ছাব্বিরকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। গতকাল বুধবার রাত ৮টার দিকে কেদারগঞ্জ বাজার এলাকার আব্দুর রাজ্জাকের বাড়ির সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ছাব্বিরের অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহীতে রেফার্ড করেন। আহত ছাব্বির হোসেন চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার সিএন্ডবিপাড়ার মৃত আব্দুল করিমের ছেলে। এ ঘটনার পর পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে বাসটি জব্দ করে থানায় নিয়েছে। এসময় বাসের চালক ও সহকারী পালিয়ে যান।
আহত ছাব্বিরের পরিবারের সদস্যরা জানায়, গতকাল রাতে শহরে ব্যক্তিগত কাজ শেষে ছাব্বির মোটরসাইকেলযোগে বাড়ির উদ্দেশে যাচ্ছিলেন। এসময় কেদারগঞ্জ এলাকায় পৌঁছুলে দামুড়হুদা থেকে ছেড়ে আসা চুয়াডাঙ্গাগামী শাপলা পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। পরে স্থানীয়রা বাসটি আটক করে এবং আহত ছাব্বিরকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে পাঠায়। এ সময় সুযোগ বুঝে বাসের চালক ও সহকারী পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছে বাসটি জব্দ করে থানায় নেয়।
চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. আহসানুল হক দৈনিক মাথাভাঙ্গাকে বলেন, ছাব্বিরের শারীরিক অবস্থা শঙ্কামুক্ত নয়। তার এক পা ভেঙে গেছে। মাথায় প্রচন্ড আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছে। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে।
চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন দৈনিক মাথাভাঙ্গাকে বলেন, ঘটনাস্থল থেকে শাপলা পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস জব্দ করা হয়েছে। চালক ও সহকারী পলাতক রয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More