চুয়াডাঙ্গার খাড়াগোদায় শিক্ষক লাঞ্ছিত : প্রধান শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ

 

গড়াইটুপি প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার খাড়াগোদা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষককে লাঞ্চিত করার অভিযোগে অভিযুক্ত শিক্ষককে কারণ দর্শাতে নোটিশ প্রদান করেছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। গতকাল ওই ঘটনায় চুয়াডাঙ্গা জেলা শিক্ষা অফিসারসহ কর্মকর্তারা স্কুল পরিদর্শন করেছেন। গতকাল দুপুরের দিকে শিক্ষা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারাসহ স্থানীয় গণ্যমাণ্য ও অভিভাবকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এ সময় জেলা শিক্ষা অফিসার আতাউর রহমান বলেন, শিক্ষাঙ্গনে একটি অপ্রত্যাশিত ঘটনা ঘটেছে যা আদৌও কারো কাম্য ছিলো না। ঘটনাটি যেনো রাজনৈতিক ইস্যুতে পরিণত না হয়। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ঘটনা আমরা গুরুত্বসহকারে আমলে নিয়েছি, আমরা এর সুরাহা করবো। শিক্ষার্থীরা তাদের শিক্ষা কার্যক্রম থেকে যেন সরে না যায়। কারণ একদিন পাঠ বন্ধ হলে তার ক্ষতি পোষানো সম্ভব হবে না। ইতিমধ্যে উপজেলা প্রশাসন বিষয়টি নিয়ে অভিযুক্ত শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছেন। আমরা আন্তরিকতার সাথে বিষয়টি নিয়ে কাজ করছি।

এ সময় স্থানীয়রা অভিযোগ করেন অদৃশ্য কারণে প্রধান শিক্ষক বার বার এডহক কমিটি গঠন করছেন। তারা নিয়মিত ম্যানেজিং কমিটির দাবি করলে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আগামীতে নিয়মিত কমিটি গঠনের সহায়তায় আশ্বাস দেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বিকাশ কুমার সাহা, একাডেমিক সুপারভাইজার সোহেল আহমেদ, হিসাবরক্ষক কাম ক্লার্ক মিকাইল হোসেন। গণ্যমাণ্য ব্যক্তিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন গড়াইটুপি ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি জাহিদুল ইসলাম বিশ্বাস, খাড়াগোদা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম, খাড়াগোদা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি আব্দুল মতিন খোকন, গড়াইটুপি ইউনিয়ন পরিষদের ৩নং ওয়ার্ড সদস্য হাফিজুর রহমান, গড়াইটুপি ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আতিয়ার রহমান, ব্যাংকার মশিউর রহমান, সাবেক মেম্বার ছানোয়ার হোসেন, সাহাজুল ইসলাম, ফজলুর রহমান। এছাড়াও অভিভাবক হাসানুজ্জামান হাসান, মতিয়ার রহমান, মাসুদ রানা প্রমুখ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন খাড়াগোদা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক শিক্ষিকা। উল্লেখ্য, গত রোববার বিদ্যালয়ে কাবাডি খেলায় অংশগ্রহণ করাকে কেন্দ্রকরে প্রধান শিক্ষক নাহারুল ইসলামের বিরুদ্ধে বিদ্যালয়ের ক্রীড়া শিক্ষক ও ল্যাব এসিস্ট্যান্টকে মারধরের অভিযোগ ওঠে। এ ঘটনায় শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে সোমবার প্রধান শিক্ষকের অপসারণ ও শাস্তির দাবি জানিয়ে মাবনবন্ধন কর্মসূচি পালন করেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More