চুয়াডাঙ্গার নাট্যজন সাইদুল ইসলাম লালু ও বংশীবাদক ফজলু ফকিরের স্মরণসভা অনুষ্ঠিত

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার প্রবীণ নাট্য ব্যাক্তিত্ব প্রয়াত সাইদুল ইসলাম লালু এবং বংশীবাদক ফজলু ফকিরকে স্মরণ করেছে জেলা শিল্পকলা একাডেমি। শুক্রবার সন্ধ্যায় চুয়াডাঙ্গা জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে তাঁদের স্মৃতিতে স্মরণসভা দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। স্মরণসভায় বক্তারা বলেন, চুয়াডাঙ্গার সাংস্কৃতিক অঙ্গণে এই দুজনের অবদান অনেক। তাঁদের প্রয়াণে এই অঙ্গণের অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেলো। সাইদুল ইসলাম লালু ও ফজলু ফকিরের আদর্শ ও ব্যাক্তিত্বকে নতুন প্রজন্মের সাংস্কৃতিক কর্মীদেরকে ধারণ করতে হবে। নতুন প্রজন্মের মধ্যথেকে সাইদুল ইসলাম লালুর মতো নাট্যজন এবং ফজলু ফকিরের যোগ্য উত্তরসূরী বংশীবাদক গড়ে তুলতে হবে। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আরাফাত রহমানের সভাপতিত্বে স্মরণসভায় সাবেক ভারপ্রাপ্ত কালচারার অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাবিবুর রহমান, জেলা কালচারাল অফিসার মোহাম্মদ সাদাত হোসাইন, চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রাজীব হাসান, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমা-ার বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম মালিক, জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুন্সী জাহাঙ্গীর আলম, নাট্যকার মো. আলাউদ্দিন, অরিন্দম সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সালাম সৈকত, উদীচী চুয়াডাঙ্গার সাধারণ সম্পাদক আদিল হোসেন, চুয়াডাঙ্গা সাহিত্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক নজির আহম্মেদ, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সালাম তারা, জেলা বাউল কল্যাণ পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জুড়ন বাউল ও এনএসআইয়ের উপ-পরিচালক জামিল সিদ্দিক। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ছিলেন চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের বাংলা বিভাগের সহযোগি অধ্যাপক মুন্সি আবু সাইফ। এবং দোয়া পরিচালনা করেন হাফেজ আব্দুল আলিম। চুয়াডাঙ্গা জেলা শিল্পকলা একাডেমির বংশীবাদক ফজলুর রহমান গত ২৫ সেপ্টেম্বর এবং বিশিষ্ট নাট্য অভিনেতা ও নাট্যপরিচালক সাইদুল ইসলাম গত রোববার দিবাগত রাতে মৃত্যুবরণ করেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More