চুয়াডাঙ্গায় অ্যাওয়ার্ড প্রদানকালে চেয়ারম্যান শামসুল আবেদীন

যেকোন দুর্যোগ মোকাবেলায় রেডক্রিসেন্ট সর্বাঙ্গে এগিয়ে যায়
স্টাফ রিপোর্টার: ‘আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবক দিবস’ উদযাপন উপলক্ষে বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি চুয়াডাঙ্গা ইউনিট পর্যায়ে ১০ জন শ্রেষ্ঠ স্বেচ্ছাসেবককে অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়েছে। গতকাল রোববার বেলা ১১টায় রেডক্রিসেন্ট ইউনিট কার্যালয়ে এ শ্রেষ্ঠ স্বেচ্ছাসেবকদের অ্যাওয়ার্ড প্রদান করেন প্রধান অতিথি ইউনিট চেয়ারম্যান শেখ সামসুল আবেদীন খোকন।
চুয়াডাঙ্গা রেডক্রিসেন্ট ইউনিট পর্যায়ে ১০ জন পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন, উপ-যুব প্রধান বিপ্লব হোসেন, খেলাধুলা ও সংস্কৃতি বিভাগের প্রধান আবু বক্কর, স্বাস্থ্য বিভাগের উপ-প্রধান শরিফা সুহাসিনী, প্রশিক্ষণ বিভাগের উপ-প্রধান শাহিন হোসেন, বন্ধুত্ব বিভাগের উপ-প্রধান জারিন তাসনীম, সক্রিয় যুব সদস্য শাবনুর খাতুন, রাজাউজ্জামান, রকিবুল ইসলাম, শেখ ছাদী ও শাখাওয়াত হোসেন। এসময় পুরস্কার প্রাপ্তদের মাঝে মেডেল, সার্টিফিকেট ও রেডক্রিসেন্ট লোগোযুক্ত টি-শার্ট প্রদান করা হয়।
বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি চুয়াডাঙ্গা ইউনিটের সেক্রেটারি শহিদুল ইসলাম শাহানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ইউনিট অফিসার ওবাইদুল ইসলাম পারভেজ। এসময় রেডক্রিসেন্ট ইউনিট চেয়ারম্যান ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ সামসুল আবেদীন খোকন প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। সভায় কার্যনির্বাহী কমিটির ১নং সদস্য অ্যাড. রফিকুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন। এছাড়া সভায় সদর উপজেলার সড়াবাড়িয়া রেডক্রিসেন্ট মাতৃসদন শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের চেয়ারপার্সন শরিফুল ইসলাম ও জেলা পরিষদ সদস্য মিজানুর রহমান এবং যুব রেডক্রিসেন্ট সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
দেশব্যাপী যুব রেডক্রিসেন্ট কার্যক্রম গতিশীল করাসহ যুব সদস্যদেরেকে স্বেচ্ছাসেবা কার্যক্রম আরো উৎসাহিত করার লক্ষ্যে সোসাইটির যুব ও স্বেচ্ছাসেবক বিভাগের উদ্যোগে এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধীনে পরিচালিত উপকূলীয় দুর্যোগ ঝুঁকিহ্রাস কর্মসূচির সহায়তায় বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি (বিডিআরসি) এবছর চুয়াডাঙ্গা ইউনিটের যুব সদস্যদের মধ্যে থেকে শ্রেষ্ঠ স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে ১০ জনকে নির্বাচিত করেছে।
পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে রেডক্রিসেন্ট ইউনিট চেয়ারম্যান শেখ সামসুল আবেদীন খোকন বলেন, রেডক্রিসেন্টের মূলনীতি সেবা করা। সেবা করার জন্য স্বেচ্ছাসেবক বা যুব রেডক্রিসেন্ট সদস্যদের কাজ হলো আর্তমানবতার সেবা করা। জাতীয় সদর দফতরের পক্ষ থেকে যারা মনোনীত হয়েছে তাদেরকে পুরস্কৃত করা হয়েছে। স্বেচ্ছাসেবকরা চুয়াডাঙ্গা রেডক্রিসেন্টর অহংকার। যেকোনো দুর্যোগ মোকাবেলায় রেডক্রিসেন্ট সর্বাঙ্গে এগিয়ে যায়। যুব রেডক্রিসেন্টে আরো সদস্য বাড়ানোর চেষ্টা করছি। অত্যন্ত সেবামূলক প্রতিষ্ঠান রেডক্রিসেন্ট। স্বেচ্ছাসেবকদের কোনো ভাতা দেয়া হয় না। নিজের জীবনকে তৈরী করা ও জনসাধারণের মাঝে সেবা প্রদান করা স্বেচ্ছাসেবকদের কাজ । ১০ জন শ্রেষ্ঠ স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে পুরস্কৃত করছি। যারা হয়নি তাদেরকে বলবো সেবা ধর্মকে আদর্শ মনে করে কাজ করবে। তোমরা এসেছো সেবা দেয়ার জন্য। আগামীতে আরো মেডেল পাবার প্রত্যাশা থাকবে, সেই আশা করবো।
অ্যাওয়ার্ড প্রদানকালে ইউনিটের সেক্রেটারি শহিদুল ইসলাম শাহান বলেন, স্বেচ্ছাসেবকরা সেবা দিয়ে চুয়াডাঙ্গা ইউনিটের সুনাম অক্ষুন্ন রাখবে। যেকোনো দুর্যোগ মোকাবেলায় সদা প্রস্তুত থাকবে স্বেচ্ছাসেবকরা এ প্রত্যাশা করছি।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More