চুয়াডাঙ্গায় প্রশিক্ষণ ও সেমিনারে জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার

ভাতা বিতরণ কার্যক্রমে দুস্থ ও অসহায় যারা তাদের ব্যবস্থা করবেন

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার বলেছেন, ‘ভাতা বিতরণ কার্যক্রমে দুস্থ ও অসহায় যারা তাদের ব্যবস্থা করবেন। যারা না খেয়ে থাকে তাদের যদি না করেন তাহলে আপনাদের দায়িত্বে অবহেলা করা হবে। আপনারা সবচেয়ে মানবিক কাজগুলো করেন। তাহলে মানুষ উপকৃত হবে। আপনারা চেষ্টা করবেন সম্পূর্ণ নিরপেক্ষভাবে যার যার এলাকায় অগ্রাধিকার ভিত্তিতে নামের তালিকা করার। যেকোন দেশের উন্নয়নের জন্য একটা স্থিতিশীল সরকার দরকার। বর্তমান সরকার ২০০৯ সাল থেকে নিরবিচ্ছিন্নভাবে এ সরকার কাজ করে যাচ্ছেন। এর প্রতিফলন আমরা পাচ্ছি। গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১০টায় জেলা সমাজ সেবা কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত দু’দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ ও সেমিনারে জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার প্রধান অতিথি হিসেবে এসব কথা বলেছেন।
জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত প্রশিক্ষণ ও সেমিনারে জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার প্রধান অতিথি হিসেবে প্রশিক্ষণ ও সেমিনারের উদ্বোধন করেন। প্রশিক্ষণ ও সেমিনারে সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক সিদ্দীকা সোহেলী রশীদ, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) মুন্না বিশ্বাস, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক জাহিদুল ইসলাম, জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক মাকসুরা জান্নাত, শহর সমাজসেবা প্রকল্প পরিষদের সভাপতি শহিদুল ইসলাম শাহান, শহর সমাজসেবা কর্মকর্তা মিজানুর রহমান, প্রবেশন কর্মকর্তা বশির আহমেদ, শিশু পরিবারের উপ-তত্বাবধায়ক রুম্মানা বিলকিছ, আলমডাঙ্গা উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা নাজমুল হোসেন ও রেজিস্ট্রেশন কর্মকর্তা সাঈদ হাসান উপস্থিত ছিলেন।
প্রশিক্ষণ ও সেমিনারে শহর সমাজসেবা কার্যালয় ক্ষুদ্রঋণের ব্যবহার ও দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের মানোন্নয়নে করণীয়, সরকারি শিশু পরিবার আধুনিক শিশু পরিবার ব্যবস্থাপনায় শিশু সুরক্ষা, পূণর্বাসন ও স্বাস্থ্য, প্রবেশন কার্যালয়ের প্রবেশন এন্ড আফটার কেয়ার কার্যক্রম বাস্তবায়ন ও দক্ষতা বৃদ্ধি এবং জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় জিটুপি-এর মাধ্যমে ভাতা বিতরণের সমস্যা ও প্রতিকার বিষয়ে করণীয় নিয়ে আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। প্রশিক্ষণে উপজেলা পর্যায়ের ফিল্ড সুপারভাইজার, অফিস সহকারী, শিশু পরিবারের কর্মচারীবৃন্দ ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের-এনজিও প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
প্রশিক্ষণ ও সেমিনারে জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার আরো বলেন, ভাতা বিতরনে দুর্নীতিমুক্তভাবে কাজগুলো করতে পারেন তাহলে আপনাদের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করা হবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিলো এদেশের মানুষের জন্য সুখি সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়ে তোলা। কেউ অন্ন, বস্ত্র ও গৃহহীন থাকবে না। বর্তমানে জাতির পিতার যোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবসময় চিন্তা করেন কিভাবে এগুতে হবে। তার দূরদর্শীতার জন্য ২০৪১ সালের যে উন্নত রাষ্ট্রের স্বপ্ন নিয়ে এগুচ্ছে তা বাস্তবায়ন সম্ভব হবে। ভাতা বিতরণ কার্যক্রম আছে নিরপেক্ষভাবে কাজ করবেন। অগ্রধিকারভিত্তিতে দুস্থ ও অসহায় মানুষের জন্য। যারা দু’বেলা খাবার পাচ্ছেন তাদের না দিয়ে, যারা খেতে পাচ্ছে না তাদের দিকে খেয়াল রাখবেন।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More