চুয়াডাঙ্গা জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সভায় ২৪ দফা উন্নয়ন কর্ম পরিকল্পনা তুলে ধরলেন সভাপতি আলমগীর হোসেন

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা আইনজীবী সমিতির নবনির্মিত মিলনায়তনে এ সাধারণ সভাটি অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ৯৬ লাখ ৭ হাজার ২৩৫ টাকার আয়-ব্যয়ের বাজেট অনুমোদন দেয়া হয়। এদিকে, জেলা আইনজীবী সমিতির ২৪ দফা উন্নয়ন কর্ম পরিকল্পনা তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি আলমগীর হোসেন।

জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাড. আলমগীর হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সাধারণ সভা সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. তালিম হোসেন। সভায় সিনিয়র আইনজীবী মোসলেম উদ্দিন, সেলিম উদ্দিন খান, আব্দুস সামাদ, নুরুল ইসলাম, এমএম শাহজাহান মুকুল, শামীম রেজা ডালিম, আ.স.ম আব্দুর রউফ, মইনুদ্দিন মইনুল, ফজলে রাব্বী সাগর, মসলেম উদ্দিন (২), শফিকুল ইসলাম শফি, আহসান আলী, খন্দকার অহিদুল আলম মানি, তসলিম উদ্দিন ফিরোজ ও মশিউর রহমান বক্তব্য রাখেন।

কর্ম পরিকল্পনার মধ্যে রয়েছে আইনজীবীদের নতুন আয়ের উৎস তৈরী, বাৎসরিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, আধুনিক মানের পাঠাগার নির্মাণ, বার ও বেঞ্চের মধ্যে সু-সম্পর্ক স্থাপন, কোর্ট প্রাঙ্গণে দালাল নির্মূল, ঘুষ-দুর্নীতি বন্ধ, সৌন্দর্য্য বন্ধনে ফুল বাগান স্থাপন, গাড়ি পার্কিং, যুগোপযোগী গঠনতন্ত্র প্রণয়ন, জীবদ্দশায় আর্থিক অনুদান প্রদান, চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবন নির্মাণ, আইনজীবীদের ব্যক্তিগত তথ্য হালনাগাদ করণ, আইনজীবীদের জন্য স্মরণিকা প্রস্ততকরণ, যুগোপযোগী ও আধুনিক সিকিউরিটিযুক্ত ওকালতনামা প্রস্তুত ও প্রকাশ করণ, অফিস সহকারীর পোষাক নির্ধারণ এবং বিলকিস স্টোরের দক্ষিণ পাশে ভাঙা রাস্তা সংস্কার করার জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে দ্রুত বাস্তবায়ন করা।

এছাড়া, ২০২১ সালের নির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠান, আইনজীবীদের জন্য মানসম্মত ও আধুনিক মানের ক্যান্টিন নির্মাণ, আইনজীবী সমিতির পুরাতন ভবনের স্থলে মাস্টারপ্লান অনুযায়ী আধুনিক মানের বহুতল বিশিষ্ট ভবন ভবন নির্মাণ, আইনজীবীদের জন্য কমন রুম, বাথরুম ও নামাজের স্থান নির্ধারণ, মহিলা আইনজীবীদের জন্য পৃথক কমন রুম , বাথরুম ও নামাজের স্থান নির্ধারণ, আইনজীবী সমিতির নামে ওয়েবসাইট ও হিসাব শাখার জন্য পৃথক সফটওয়্যার প্রস্তুতকরণ, আইনজীবীগণ যাতে বৃষ্টিতে না ভিজে সেজন্য আইনজীবী ভবন থেকে কোর্টে যাতায়াতের জন্য শেড নির্মাণ করা।

জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক তালিম হোসেন বলেন, আইনজীবীদের প্রত্যাশা নিয়ে আমরা নির্বাচিত হয়েছি। আমরা যে কর্মপরিকল্পনা নিয়েছি, আইজীবীদের উন্নয়ন ও বারের স্বার্থে সবকিছুই করা হবে। এজন্য বারের আইনজীবীদের পরামর্শ ও সহযোগিতা কামনা করছি।

জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি আলমগীর হোসেন বলেন, প্রথমসভার বাজেট ও কর্ম পরিকল্পনা অনুমোদন হয়েছে। আইনজীবীরা আস্থার সাথে পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন এবং সাধুবাদ জানিয়েছেন। বিষয়গুলো প্রশংসিত হয়েছে। সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। আমার চেষ্টার কোনো ত্রুটি থাকবে না। চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ভবন ও বার ভবনের মাস্টার প্লান অনুযায়ী করা হবে। এজন্য সকল আইনজীবীর সহযোগিতা কামনা করছি।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More