দামুড়হুদার এন এয়েভ ফুড ফ্যাক্টরিতে ভ্রাম্যমাণ আদালতে জরিমানা : ১৫দিনের আল্টিমেটাম

দামুড়হুদা প্রতিনিধি: দামুড়হুদা উপজেলা শহরের জনবসতিপূর্ণ বাসস্ট্যান্ড এলাকায় গড়ে তোলা এনএয়েভ ফুড ফ্যাক্টরিতে অভিযান চালিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে প্রতিষ্ঠানটির কর্মচারী জাহাঙ্গীর হোসেনকে জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সানজিদা বেগম। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতে প্রতিষ্ঠানটির বৈধ কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হওয়ায় ১৫দিনের সময় বেঁধে দেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক। ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা গেছে, এন ওয়েভ ফুড ফ্যাক্টরিতে অভিযান চালায় দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সানজিদা বেগম। এ সময় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯সালের ৫২ধারায় (সেবা গ্রহীতার জীবন ও নিরাপত্তা বিপন্নকারী কার্য করিবার) অপরাধে অভিযুক্ত করে প্রতিষ্ঠানটির কর্মচারী মো. জাহাঙ্গীর হোসেনকে ৫হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক। ভ্রাম্যমাণ আদালতে জরিমানার অর্থ নগদে পরিশোধ করে মুক্তি পাই অভিযুক্ত মো. জাহাঙ্গীর হোসেন। অভিযুক্ত মো. জাহাঙ্গীর হোসেন দামুড়হুদা দশমীপাড়ার মৃত মোরাব্বী’র ছেলে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সানজিদা বেগম বলেন, এন ওয়েভ ফুড ফ্যাক্টারিতে অভিযান চালিয়ে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে জরিমানা আদায় করা হয়েছে। এছাড়াও ওই ফুড ফ্যাক্টরির বৈধ কাগজপত্র না দেখাতে পারায় তাদেরকে ১৫দিনের সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে। আগামী ১৫দিনের মধ্যে বৈধ কাগজপত্র দেখাতে না পারলে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ভ্রাম্যমাণ আদালতে সহায়তা করেন দামুড়হুদা উপজেলা স্যানেটারি পরিদর্শক জামাত আলী, উপজেলা নির্বাহী অফিসের সার্টিফিকেট সহকারী জিহন আলী ও দামুড়হুদা মডেল থানা পুলিশের সদস্যরা।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More