দামুড়হুদায় যত্রতত্র অবৈধ করাতকল

কুড়ুলগাছি  প্রতিনিধি: কার্পাসডাঙ্গা-নাটুদাহের বিভিন্ন স্থানে গড়ে ওঠা ১৫টি করাত কলের মধ্যে প্রায় সবগুলিই অবৈধভাবে পরিচালিত হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট দফতরের অনুমোদন ছাড়াই চলছে এসব করাতকল। এছাড়া যত্রতত্রভাবে ব্যাঙের ছাতার মতো গড়ে ওঠা এসব করাতকলে একদিকে যেমন উজাড় হচ্ছে বনজ সম্পদ অন্যদিকে প্রতিবছর সরকার হারাচ্ছে বিপুল পরিমাণ রাজস্ব আয়। বন বিভাগ থেকে জানা যায়, এ সব অঞ্চলে যথাযথ প্রক্রিয়ায় লাইসেন্সপ্রাপ্ত করাতকলের সংখ্যা নেই। লাইসেন্সবিহীন অবৈধভাবে পরিচালিত হচ্ছে সবকিছু। অনুমোদনহীন এসব অবৈধ করাতকলের মাধ্যমে বেপরোয়াভাবে চলছে বৃক্ষ নিধন। ইটভাটার জ্বালানি হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে এসব করাতকলের কাঠ। অনুসন্ধানে দেখা যায় অধিকাংশ স’মিলগুলো গড়ে উঠেছে মহাসড়ক ও আঞ্চলিক সড়ক ঘেঁষে। তবে সামাজিক বন বিভাগ থেকে ছাড়পত্র বা অনুমোদন নেই। একাধিক করাত কল মালিক জানান, স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ট্রেড লাইসেন্স করা হয়। কোনো সময় ওপর থেকে কেউ এলে তাদেরকে ম্যানেজ করা হয়। এ বিষয়ে জানতে চাইলে দামুড়হুদা সামাজিক বন বিভাগ কর্মকর্তা মো. শরিফুল ইসলাম কাজল জানান, অবৈধ ও অনুমোদনবিহীন করাত কল মালিকদের কাছে ইউএনও এবং বন বিভাগের স্থানীয় কর্মকর্তাদের মাধ্যমে সর্তক করে নোটিশ পাঠানো হবে। এদের উচ্ছেদ করতে হলে প্রশাসনের সহযোগিতা প্রয়োজন। শুরুতেই যদি বন বিভাগ কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করতো তাহলে এমনটি হতো না।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More