দামুড়হুদা ও জীবননগরে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও মহান বিজয় দিবসের প্রস্তুতিসভা

দামুড়হুদা প্রতিনিধি: দামুড়হুদায় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলকসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদের সভাকক্ষে সভাটি করা হয়। দামুড়হুদা উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা বেগমের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলী মুনছুর বাবু, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাহিদা খাতুন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজি সহিদুল ইসলাম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা রুস্তম আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা আছির উদ্দীন, আব্দুল ওদুদ শাহ্ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ কামাল উদ্দীন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবু হেনা মোহাম্মদ জামাল শুভ, উপজেলা প্রকৌশলী খালিদ হোসেন, দামুড়হুদা মডেল থানার ওসি ফেরদৌস ওয়াহিদ, দর্শনা থানার ওসি লুৎফুল কবীর, দামুড়হুদা সদর ইউপি চেয়ারম্যান হযরত আলী, নতিপোতা ইউপি চেয়ারম্যান ইয়ামিন আলী, নাটুদহ ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম, কড়–লগাছি ইউপি চেয়ারম্যান কামাল উদ্দীন, হাউলী ইউপি চেয়ারম্যান ভারপ্রাপ্ত নিজাম উদ্দীন, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার হারুণ অর রশিদ, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল মতিন, দামুড়হুদা প্রেসক্লাবের সভাপতি এম নুরুন্নবী, সাবেক সভাপতি দীন মোহাম্মদ, দামুড়হুদা উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক সেলিম উদ্দীন বগা, দামুড়হুদা বাসস্ট্যান্ড বাজার বণিক সমিতির সভাপতি মাকসুদুর রহমান রতনসহ সরকারি বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক, সাংবাদিকবৃন্দ। সভায় আগামী ১৪ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবস ও ১৬ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের লক্ষ্যে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

জীবননগর ব্যুরো: জীবননগরে ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলকসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার বেলা ১১ টার সময় জীবননগর উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে এ প্রস্তুতিমূলকসভা অনুষ্ঠিত হয়। জীবননগরের নবাগত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রোকনুজ্জামানের সভাপতিত্বে প্রস্তুতিমূলক সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন-জীবননগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী মো. হাফিজুর রহমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন-সহকারী কমিশনার (ভূমি) তিথি মিত্র, জীবননগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মো. গোলাম মোর্তূজা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি উপধ্যক্ষ মো. নজরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল লতিফ অমল, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. আব্দুল সালাম ঈশা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়েশা সুলতানা লাকি প্রমুখ। সভায় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও মহান বিজয় দিবস উদযাপনের লক্ষ্যে বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। গৃহীত সিদ্ধান্তগুলোর মধ্যে রয়েছে-১৪ ডিসেম্বর বেলা ১১টার সময় উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের গুরুত্ব ও তাৎপর্য নিয়ে আলোচনাসভা, উপজেলার সকল ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা এবং সন্ধ্যা ৬টার সময় জীবননগর মুক্তমঞ্চে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে মোমবাতি প্রজ্জলন করা হয়। ১৬ ডিসেম্বর সূর্যোদয়ের সাথে সাথে উপজেলার সকল সরকারি, আধাসরকারি, স্বায়িত্বশাসিত ও বেসরকারি ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, সকাল ৮টার সময় জীবননগর থানা পাইলট মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে জাতীয় সংগীতের সাথে সাথে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, বেলা ১০টার সময় মাধবখালী সীমান্তে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও ফাতেহা পাঠ, বেলা ১১টায় জীবননগর থানা পাইলট মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা এবং আলোচনা সভা, দুপুর সাড়ে ১২টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক চলচিত্র প্রদর্শনী, বাদ জোহর উপজেলার ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে জাতির শান্তি ও অগ্রগতি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা এবং সন্ধ্যা ৬টায় উপজেলা পরিষদ চত্বরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। প্রস্তুতিমূলক সভায় ইউপি চেয়ারম্যানগণ, উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ, রাজনৈতিকদলের নেতৃবৃন্দ, বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More