প্রবীণরা মেতে উঠলেন পুরোনো দিনের স্মৃতিচারণে

আলমডাঙ্গার মুন্সিগঞ্জ একাডেমীর ১৯৬৯ সালের এসএসসি ব্যাচের পুনর্মিলনী

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি: আলমডাঙ্গার মুন্সিগঞ্জ মেতে উঠলো প্রবীণদের মিলন মেলায়। গতকাল শনিবার দিনভর নানা আয়োজনে প্রবীণরা উদযাপন করলেন পুনর্মিলনী। দীর্ঘদিন পর বন্ধুরা পরস্পর স্মৃতিচারণে মেতে উঠলেন। সে এক অন্য রকম অনুভূতি। ফেলে আসা স্মৃতিময় দিনগুলো কত না মধুর, কত না ভালো লাগার। তা রোমন্থন করেন মুন্সিগঞ্জ একাডেমীর প্রাক্তন ছাত্ররা। ১৯৬৯ সালের এসএসসি ব্যাচের এসব বন্ধু পুরোদিন কাটালেন মুন্সিগঞ্জ ফুটবল মাঠ সংলগ্ন জেহালা ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে। প্রথমেই বেলা ১১টার দিকে তারা একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করেন মুন্সিগঞ্জ বাজারে। এরপর স্মৃতিচারণ। দীর্ঘদিন পর সেই ৬০ দশকের বাল্যবন্ধুরা একত্রে মিলিত হতে পেরে আনন্দে মেতে ওঠেন খোশগল্পে। কেউ কোলাকুলি, কেউ পুরোনো দিনের গল্প। সকলের মধ্যে এক অন্য রকম আবেগ।

খুলনা থেকে প্রাণের টানে বন্ধুদের পুনর্মিলনীতে ছুটে আসেন মুন্সিগঞ্জের কৃতী সন্তান দেশের খ্যাতিমান চিকিৎসক মো. রফিকুল ইসলাম বাবলু। ভারত থেকে এসে যোগ দেন প্রখ্যাত লেখক স্বপন মৈত্র। বন্ধুদের মধ্যে মুন্সিগঞ্জের কৃতী ব্যক্তিত্ব বিশিষ্ট ব্যবসায়ী শ্যাম সুন্দর আগরওয়ালা, পীর মোহাম্মদ, মো. ইদ্রিস আলী, রবীন্দ্রনাথ বিশ্বাস, শুকুর মাস্টার ও মো. এমদাদুলের উদ্যোগে সকলের সহযোগিতায় পুনর্মিলনীর আয়োজন করা হয়। চলতে থাকে একের পর এক স্মৃতিচারণ। দুপুরে মধাহ্নভোজ শেষে শুরু হয় ফটোসেশন। মুন্সিগঞ্জের বিশিষ্ট ইটভাটা ব্যবসায়ী আবিদ উদ্দোজা কেবল মিয়া জানান, মুন্সিগঞ্জ একাডেমীর ১৯৬৯ সালের এসএসসি ব্যাচের পুনর্মিলনী একটি ব্যতিক্রমী আয়োজন। পুরোনো দিনের স্মৃতিচারণ প্রবীণদের কাছ থেকে শুনে খুব ভালো লাগে। এতদিন পরেও প্রবীণরা এক হয়েছেন এটা খুবই ভালো লাগার। বন্ধুদের মধ্যে কেউ ডাক্তার, কেউ ইঞ্জিনিয়ার, কেউ আইনজীবী, কেউ শিক্ষক, কেউ ব্যবসায়ী, কেউ কৃষক, কেউ শ্রমিক হলেও পুনর্মিলনী হয়ে ওঠে এক সারির। ছিলেন কয়েকজন বীর মুক্তিযোদ্ধাও। সব ধরনের ভেদাভেদ আর উঁচুনিচুর পাঁচিল ভেঙে বন্ধুরা হয়ে ওঠেন এক আত্মা, এক অন্যন্য ভালোবাসার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন তারা। এখানে কোনো ভেদাভেদ ছিল না। জেহালা ইউপি চেয়ারম্যান মোখলেছুর রহমান শিলনের সার্বিক সহযোগিতায় পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বনি আমিন মাস্টার, হাসিবুল হক, আবু তাহের, কফিল উদ্দিন, হাফিজুর রহমান, মজিবুল হক, নূরুজ্জামান, দৌলত আলী মাস্টার, সিদ্দিক আলী, আলতাব আলী, ফরজ উদ্দিন, শরীফ লোকমান, আরমান আলী, আনিছুর রহমান, আক্তার, শাহাবুদ্দিন, রবজেল হক, আলতাফ হোসেন, আলহাজ অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম, ইয়াজ উদ্দিন, রেজাউল হক, বীর মুক্তিযোদ্ধা নূরুল ইসলাম, রহিম ম-ল, সফিউদ্দিন, নওশের আলী, সার্জেন্ট (অব.) এখলাস উদ্দিন, আজিবার, ফজলুর রহমান, সবার্ট দত্ত, রনজিৎ সরকার, খন্দকার গোলাম তৌহিদ।

 

এছাড়া, আরও পড়ুনঃ

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More